মেইন ম্যেনু

ক্যান্সার দূর করবে সঙ্গীত

ক্যান্সারের বিরুদ্ধে যুদ্ধে রোগীদের সহায়তা করে সমবেত সঙ্গীত। এটি তাদের সে রোগটির বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়তে ও তা নিরাময়ে শক্তি যোগায় বলে জানিয়েছেন গবেষকরা। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে পিটিআই।

সঙ্গীত মূলত মানুষের মানসিক চাপ কমায় ও মুড ভালো করে। আর এর ফলে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। ফলে ক্যান্সারের মতো মারাত্মক রোগের বিরুদ্ধেও দেহ প্রতিরোধ ক্ষমতা কার্যকরভাবে কাজে লাগাতে পারে বলে জানাচ্ছেন গবেষকরা।

এ বিষয়ে গবেষণাটি করেছেন যুক্তরাজ্যের গবেষকরা। টেনোভাস ক্যান্সার কেয়ার ও দ্য রয়েল কলেজ অব মিউজিকের গবেষকরা জানান, সমবেত সঙ্গীতের মাধ্যমে ক্যান্সারের চিকিৎসায় সবচেয়ে ভালো ফল পাওয়া গেছে। এটি ক্যান্সার আক্রান্তদের সাহস যোগায় এবং ক্যান্সার দূর করতে সহায়তা করে।

এ বিষয়ে অনুসন্ধানের জন্য গবেষকদল পাঁচটি ভিন্ন সমবেত সঙ্গীত নিয়ে ক্যান্সার রোগীদের ওপর প্রভাব বিশ্লেষণ করেন। এতে ১৯৩ সদস্যের দল সমবেত সঙ্গীত গেয়ে অংশগ্রহণ করে।

গবেষকরা জানান, এক ঘণ্টার সমবেত সঙ্গীতই ক্যান্সার রোগীদের মানসিক চাপের জন্য দায়ী হরমোনকে কমিয়ে দেয়। এটি যেসব হরমোনের ওপর প্রভাব ফেলে তার মধ্যে রয়েছে কর্টিসল হরমোন হ্রাস করা। এছাড়া সঙ্গীতের ফলে সাইটোকিনস নামে একটি প্রোটিন বৃদ্ধি পায়। এ প্রোটিন মারাত্মক রোগের বিরুদ্ধে দেহের প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে ভূমিকা রাখে।
এ বিষয়ে টেনোভাস ক্যান্সার কেয়ারের গবেষক ইয়ান লুইস বলেন, ‘এটি সত্যিই দারুণ আবিষ্কার। আমরা গত ছয় বছর ধরে গবেষণায় দেখেছি সমবেত সঙ্গীতের নানা সামজিক, আবেগগত ও মানসিক উপকারিতা রয়েীছে। এখন আমরা এর শারীরিক উপকারিতাও জানতে পারলাম।’

লুইস আরও বলেন, ‘আমরা বহুদিন ধরেই শুনছিলাম সমবেত সঙ্গীত শুনলে মানুভ ভালো বোধ করে। কিন্তু এটি দেহের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতায় কত বড় প্রভাব ফেলে, তা আগে জানা যায়নি।’

এ গবেষণার জন্য সমবেত সঙ্গীতের আগে রোগীদের লালার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এরপর এক ঘণ্টা সমবেত সঙ্গীত শোনার পর তাদের লালার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এতে দেহের ইতিবাচক পরিবর্তনগুলো তারা লিপিবদ্ধ করেন। ফলে দেহের হরমোন, রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতার জন্য প্রয়োজনীয় জৈব উপাদান ও অন্যান্য বিষয়গুলোর পরিবর্তন নির্ণয় করা হয়।

এ বিষয়ে গবেষণার জন্য রয়াল কলেজ অব মিউজিক ও ইমপেরিয়াল কলেজ লন্ডন একত্রিত হয়ে সেন্টার ফর পারফর্মেন্স সায়েন্স নামে একটি গবেষণাগার করেছে। এ বিষয়ে সেন্টার ফর পারফর্মেন্সের গবেষক ডেইজি ফ্যানকোর্ট বলেন, ‘বহু মানুষই ক্যান্সারের সঙ্গে মানসিক সমস্যায় ভোগেন। এসব সমস্যার মধ্যে রয়েছে মানসিক চাপ, উদ্বেগ ও বিষণ্ণতা।’

তিনি আরও জানান, গবেষকরা দেখতে পেয়েছেন মানসিক এ সমস্যাসগুলো ক্যান্সারের প্রকোপ বৃদ্ধি করে। কিন্তু সমবেত সঙ্গীতের ফলে মানসিক চাপগুলো কমানো সম্ভব হয়। ফলে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে এবং ক্যান্সার নিরাময় সহজ হয়।