মেইন ম্যেনু

ক্ষমতায় থাকতে কখনো ইসলামিক, কখনো নাস্তিক

জনগণের সহানুভূতি পেতে আওয়ামী লীগ ইসলামী দলগুলোকে বিএনপির বিরুদ্ধে মাঠে নামার কথা বলছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ। আজ মঙ্গলবার দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন তিনি।

সরকারের সমালোচনা করে রিজভী আহমেদ বলেন, ‘যাঁরা সংবিধান থেকে আল্লাহর নাম মুছে দিয়েছেন, বারবার তাঁরা কওমি মাদ্রাসা বন্ধ করে দেওয়ার কথা বলেন, যাঁরা ধার্মিক মানুষদেরকে বারবার চিহ্নিত করেছেন জঙ্গি হিসেবে, ইসলামকেই একটি প্রতিপক্ষ করেছেন; তারাই এখন মোসাদ, আসলাম চৌধুরীর বৈঠক এই সমস্ত উদ্ভট কথাবার্তা এইগুলোকে নিয়ে ইসলামী দলগুলোকে মাঠে নামতে বলেছেন। জনগণের সহানুভূতি আদায় করার জন্য এই কাজগুলো করছেন। এঁরা ক্ষমতায় থাকার জন্য যখন যাকে ইচ্ছা ব্যবহার করবেন। এঁরা কখনো ইসলামিক হয়ে যাবেন, কখনো ধর্মনিরপেক্ষ হয়ে যাবেন। কখনো নাস্তিক হয়ে যাবেন।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ক্ষমতায় আসার পর ইসলামকেই সবচেয়ে বেশি আক্রমণ করেছে আওয়ামী লীগ। অথচ ক্ষমতায় থাকার জন্য কখনো ইসলামপন্থী আবার কখনো ধর্মনিরপেক্ষ সাজছে সরকার।

ইসলামী দলগুলোকে আন্দোলনে নামতে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফের বক্তব্যকে কৌতুক মন্তব্য করে রিজভী আহমেদ বলেন, মোসাদের সঙ্গে বিএনপির সম্পর্কের কল্পকাহিনী সাজিয়ে প্রচার করা হচ্ছে।

এ ছাড়া দেশে কাজ করা বেসরকারি সংস্থা বা এনজিওগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করতে সরকার বৈদেশিক অনুদান স্বেচ্ছাসেবকমূলক কার্যক্রম রেগুলেশন বিল চূড়ান্ত করেছে বলেও অভিযোগ করেন রিজভী আহমেদ।