মেইন ম্যেনু

‘ক্ষমতায় থাকতে জঙ্গিবাদকে প্রশ্রয় দিচ্ছে সরকার’

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘সরকার যে কোনো উপায়ে ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়। তারা ক্ষমতায় টিকে থাকতে উগ্রবাদ ও জঙ্গিবাদকে প্রশ্রয় দিয়ে যাচ্ছে।’

রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বুধবার (৮ জুন) দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সব কথা বলেন তিনি। গত ২ জুন মহাজোট সরকারের (২০১৬-১৭) অর্থবছরে ৩ লাখ ৪০ হাজার ৬০৫ কোটি টাকার প্রস্তাবিত বাজেটের আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানাতে এ সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করে বিএনপি।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সম্প্রতি দেশে যে গুপ্তহত্যা চলছে সরকার তা নিয়ন্ত্রণেই নয়; বরং প্রকৃত ঘটনা উৎঘাটনেও ব্যর্থ হচ্ছে। প্রকৃত দোষীদের খুঁজে বের না করে বিএনপির ওপর সেই সকল দোষ চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে।’

দেশব্যাপী বিভিন্ন গুপ্তহত্যায় আশঙ্কা প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘সরকার দেশে বড় ধরনের অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করছে। উদ্দেশ্য অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টির মাধ্যমে ক্ষমতায় থাকা।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘গত ১৮ দিনে ৪৮ জনকে হত্যা করা হয়েছে। সরকার সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। আর এ সব হত্যাকাণ্ডে কোনো রকম তদন্ত না করেই বিরোধী দলের ওপর দোষ চাপানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। এতে অপরাধীরা ধরা ছোঁয়ার বাইরে থেকে আরও উৎসায়ী হচ্ছে। এ কারণেই দিন দিন খুনের ঘটনা বেড়ে যাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘ঝিনাইদহে একজন পুরোহিতকে হত্যা করা হয়েছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। এ ছাড়াও গত কয়েক দিনে হত্যার লাইন দীর্ঘ হচ্ছে। এতে আমরা উদ্বেগ প্রকাশ করছি।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বর্তমানে যারা রাষ্ট্রক্ষমতায় আছে তাদের কোনো জবাবদিহিতা নেই। সংসদে যারা বিরোধী দল রয়েছে তারা গৃহপালিত বিরোধী দল। কোনো ব্যাপারে এ গৃহপালিত বিরোধী দল বিরোধিতা করতে পারেন না।’

‘বিএনপি কোনো রাজনৈতিক দল নয়’ সম্প্রতি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের এমন বক্তব্যের কঠোর সমালোচনা করেন মির্জা ফখরুল।

তিনি বলেন, ‘তিনি (মুহিত) তো রাজনীতিবিদ নন, তিনি তো আমলা, আর আমলা থেকে পরর্বতীতে অর্থমন্ত্রী। উনার মতো একজন লোকের কাছ থেকে বিএনপি এ ধরনের কথা আশা করেনি। বিএনপি আশা করে তিনি তার বক্তব্য প্রত্যাহার করবেন এবং রাজনৈতিক বক্তব্য দেবেন।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘প্রস্তাবিত বাজেটে নীতিবাচক প্রভাব পড়বে। কারণ এরা জনগণের দ্বারা নির্বাচিত সরকার নয়।’

এ সময় স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘বাজেট বাস্তবায়নে গতবছর যেভাবে এ অনির্বাচিত মহাজোট সরকার যেভাবে ব্যর্থ হয়েছে ঠিক তেমনি এবারও বাজেট বাস্তবায়নে ব্যর্থ হবে।’

তিনি বলেন, ‘দেশর চলমান রাজনৈতিক সংকটকালে জনগণের প্রতি যেমন এ সরকারের আস্থা নেই তেমনি সরকারের ওপরেও জনগণের আস্থা নেই। তাই এদের পক্ষে কোনো জনকল্যাণ কাজ করা সম্ভব নয়।’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান চৌধুরী কামাল ইবনে ইউসুফ, আব্দুল্লাহ আল নোমান, সেলিমা রহমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এনাম আহমেদ চৌধুরী, আব্দুল আউয়াল মিন্টু, দফতর সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম প্রমুখ।