মেইন ম্যেনু

ক্ষুব্ধ বিচারক তুরিনকে যা বললেন

একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে জামালপুরের ৮ রাজাকারের মামলা থেকে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজকে সরে যেতে বলেছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সদস্য বিচারপতি মোহাম্মাদ সোহরাওয়ার্দি।

বুধবার জামালপুরের ৮ রাজাকারের মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি চলাকালে ট্রাইব্যুনাল-১ এর চেয়ারম্যান বিচারপতি আনোয়ার উল হকের নেতৃত্বে তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনালে বিচারপতি মোহাম্মাদ সোহরাওয়ার্দি ক্ষুব্ধ হয়ে এ কথা বলেন।

এর আগে এ মামলার আসামিপক্ষের আইনজীবীরা তাদের শুনানিতে মামলার তদন্ত প্রতিবেদনে আসামিদের এবং রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীদের বিদেশি মামলার সাদৃশ্যতার সঙ্গে আনীত অভিযোগের ‘কোনো সম্পৃক্ততা স্পষ্ট নয়’ বলে উল্লেখ করেন। পরে মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ আসামিপক্ষের আইনজীবীদের যুক্তির বিরোধিতা করে তার নিজস্ব যুক্তি উপস্থাপনের চেষ্টা করেন।

এ সময় সদস্য বিচারপতি মোহাম্মাদ সোহরাওয়ার্দি ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজের কাছে যুক্তিযুক্ত নথি বিচারকদের কাছে জমা দেয়ার নির্দেশ দেন। কিন্তু সেই নথি ট্রাইব্যুনালের কাছে দাখিল করতে না পারার কারণে সদস্য বিচারপতি মোহাম্মাদ সোহরাওয়ার্দি প্রসিকিউটর তুরিন আফরোজকে ‘ইউ মে কুয়াইট টু দিস কেস (এ মামলা থেকে সরে যেতে পারেন)’ বলে মন্তব্য করেন।

পাশাপাশি এ মামলার অন্য প্রসিকিউটর তাপস কান্তি বলও প্রয়োজনীয় নথি বিচারকদের কাছে দাখিল না করায় এবং আসামিদের বিরুদ্ধে নিশ্চিত ঘটনা অবলম্বনে অভিযোগ দায়ের না করায় তাকেও ভৎসনা করেন বিচারপতি মোহাম্মাদ সোহরাওয়ার্দি। তাপস কান্তিকে বিচারক বলেন, ‘প্রাকটিস করেননি, ঘুম থেকে উঠে এসে মামলা পরিচালনা করছেন।’

একইসঙ্গে মামলার কোনো বিষয়বস্তু না বুঝলে প্রসিকিউটর তাপস কান্তি বলকে অন্যের (অন্যান্য বিজ্ঞ প্রসিকিউটর) সাহায্য নিতে পরামর্শ দেন তিনি।