মেইন ম্যেনু

কড়া নিরাপত্তায় আজ থেকে মাঠে গড়াচ্ছে বিপিএল

শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব ও আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের ম্যাচ দিয়ে শনিবার বিকালে মাঠে গড়াচ্ছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) ফুটবলের নবম আসর। ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে। খেলার নিরাপত্তায় আয়োজক ও দর্শকদের জন্য নানা নির্দেশনা দিয়েছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)।

সিএমপি কমিশনার ইকবাল বাহার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন, খেলা চলাকালীন সময়ে স্টেডিয়াম ঘিরে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গড়ে তোলা হবে। এর মধ্যে পুলিশ স্টেডিয়াম ফটকে নিরাপত্তা বলয় গড়ে তুলবে। স্টেডিয়ামের ভেতরে থাকবে র‌্যাব ও পুলিশের বিশেষ টিম। থাকবে সোয়াত।

নিরাপত্তা বলয়ে স্টেডিয়ামের ২০টি ফটকের মধ্যে ১৩টি ফটক বন্ধ থাকবে। ছয়টি ফটক দিয়ে ঢুকতে পারবেন দর্শকরা। স্টেডিয়ামে মোবাইল ছাড়া দর্শকরা আর কিছুই সঙ্গে নিয়ে ঢুকতে পারবে না।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, খেলায় অংশ নিতে আসা ১২টি দল বর্তমানে নগরীর আটটি হোটেলে অবস্থান করছেন। এসব হোটেলের প্রতিটি লবি ও ফ্লোরে অধিকতর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে। পাশাপাশি খেলোয়াড়রা পুলিশের সরবরাহ করা মাইক্রোবাসে করে মাঠে যাবে। পুলিশ গাড়ির দু’পাশে নিরাপত্তা দিয়ে তাদের মাঠে নিয়ে যাবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্টেডিয়ামে দর্শকরা মোবাইল ছাড়া ভ্যানিটি ব্যাগ এমনকি পানির বোতলও সঙ্গে নিয়ে ঢুকতে পারবে না। স্টেডিয়ামের ভেতর জেলা ক্রীড়া সংস্থার (সিজেকেএস) উদ্যোগে বিভিন্ন ভ্রাম্যমাণ দোকান খোলা হবে। সেসব দোকান থেকে খাবার ও পানীয় সংগ্রহ করতে পারবেন দর্শকরা।

স্টেডিয়ামের ছয়টি ফটক দিয়ে সাধারণ দর্শক এবং একটি ফটক দিয়ে ভিআইপি দর্শক স্টেডিয়ামে ঢুকতে পারবেন। প্রতিটি ফটকেই দর্শকদের মেটাল ডিটেক্টরে তল্লাশি করা হবে এবং আর্চওয়ে দিয়ে ঢুকতে হবে।

এছাড়া প্রতিটি দলের সঙ্গে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তা থাকবেন। ফুটবলাররা যেকোনো জায়গায় যেতে চাইলে তারা আমাদের বিষয়টি জানাবেন। আমরা ছাড়পত্র দিলে তবে চাহিদা মতো জায়গায় যাওয়া যাবে। এক্ষেত্রে ফুটবলারদের সঙ্গে সার্বক্ষণিক পুলিশি নিরাপত্তা থাকবে।

জেলা ক্রীড়া সংস্থা সূত্র জানায়, চট্টগ্রাম এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে বিপিএলের ১৯টি ম্যাচ হবে। বিএনসিসির সদস্যরা টিকেট দেখে দেখে দর্শকদের মাঠে ঢোকাবেন। এক্ষেত্রে পুলিশ কোনো হস্তক্ষেপ করবে না। কোনো সমস্যা চোখে পড়লেই পুলিশ হস্তক্ষেপ করবে।

সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন শনিবার বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলের উদ্বোধনী ম্যাচে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের বিপক্ষে মাঠে নামছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব।

চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে চারটায়। আর এই ম্যাচ দিয়েই মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলের নবম আসর। সদ্য সমাপ্ত ফেডারেশন কাপ ফুটবলের কোয়ার্টার ফাইনালে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘের কাছে টাইব্রেকারে ৪-২ গোলে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিয়েছিল শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব।

ফলে শেখ জামালের দলপতি ইয়াসিন আরামবাগকে আন্ডারডগ মানতে নারাজ। বরং প্রতিপক্ষ হিসেবে তাদের সমীহের চোখেই দেখছেন তিনি। তিনি বলেন, আরামবাগকে সমীহের চোখে না দেখার কোনো কারণ নেই। প্রথমত আরামবাগের কাছেই ফেডারেশন কাপে হেরে টুর্নামেন্ট ছাড়তে হয়েছে আমাদের। দ্বিতীয়ত, আরামবাগ ফেডারেশন কাপের রানার আপ দল।