মেইন ম্যেনু

খবরটা শুনে অঝোরে কেঁদেছিলেন তাসকিন

চেন্নাইতে ১৪ মার্চ বোলিং অ্যাকশনের পরীক্ষা দিয়ে আসার পর বেশ আশাবাদী ছিলেন পেসার তাসকিন আহমেদ। দৃঢ় বিশ্বাস ছিল, অভিযোগ থেকে মুক্তি পাবেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকেও একটি স্ট্যাটাস দিয়ে সে রকম আশাবাদের কথা শুনিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু শনিবার পেলেন উল্টো খবর, বাঁহাতি স্পিনার আরাফাত সানির সঙ্গে তাঁকেও সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

খবরটি শোনার জন্য মোটেও প্রস্তুত ছিলেন না এই ডানহাতি পেসার। নিষিদ্ধ হওয়ার খবর জানার পর কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। অধিনায়ক মাশরাফি বন মুর্তজা তাঁকে বাববার শান্ত করার চেষ্টার করেছেন, কিন্তু শান্ত করতে পারছিলেন না।

রোববার বেঙ্গালুরুতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে খোদ মাশরাফিই এই খবরটা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘নিষিদ্ধ হওয়ার খবর শোনার পর অঝোরে কেঁদেছিল তাসকিন। আমি তাকে সান্ত্বনা দেওয়ার চেষ্টা করেছি। কিন্তু সান্ত্বনা কতটা, কীভাবে দেওয়া যায়? হতাশায় মুষড়ে পড়েছে সানিও।’

তাদের শান্ত রাখতে পুরো দল হিমশিম খাচ্ছে বলেও জানান মাশরাফি, ‘এই ছেলে দুটিকে শান্ত রাখতে পুরো দলই খুবই হিমশিম খাচ্ছে। তাদের জন্য আমাদের সবারই খারাপ লাগছে।