মেইন ম্যেনু

খাকি পোশাক দেখলেই হামলা, হনুমান-আতংকে পুলিশ

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রেল শহর চিত্তরঞ্জন এক মাস ধরে এক হনুমান খাকি পোষাকের পুলিশ দেখলেই তেড়ে আসছে। দুর্ধর্ষ এই হনুমান এ পর্যন্ত কামড়েছে ১৫ পুলিশ সদস্যকে। আতংকিত রেল পুলিশ শেষ পর্যন্ত গ্রেফতার করে খাঁচায় বন্দী করেছে হনুমানটিকে। এই হনুমানের ভয়ে খাকি পোষাক পড়ে ডিউটিতে আসতে ভয় পাচ্ছিলেন রেল পুলিশের কর্মীরা।

নিজে হনুমানের কামড় খেয়েছেন, এমন এক রেল পুলিশ কর্মী জানিয়েছেন, “ডিউটি করার সময়ে কোথা থেকে লাফিয়ে এসে কামড়ে দিল হনুমানটা। এভাবে ডিউটি করা যায় না কি?” রেলের ইঞ্জিন কারখানাকে কেন্দ্র করেই শহর, তাই সেখানে রেল সুরক্ষা বাহিনী বা আর পি এফের উপস্থিতি যথেষ্ট। “প্রায় জনা ১৫ রেল পুলিশকে কামড়িয়ে দিয়েছে ওই হনুমানটি। কর্মীদের মধ্যে একটা আতঙ্ক তৈরী হয়েছে,” রেল পুলিশই ওই হনুমানটির মূল টার্গেট, তবে দুজন সাধারন নাগরিককেও কামড়েছে হনুমানটি। বাচ্চাদের বাড়ির বাইরে একা পাঠাতে ভয় পাচ্ছিলেন মানুষ। কেন যে হনুমানটির পুলিশের ওপরে ক্ষুব্ধ সেটা বোঝা যায় নি। তবে তার পায়ে একটা চোট দেখে মনে করা হচ্ছে হয়তো কোনও খাকি পোষাক পড়া কেউ ওই হনুমানটিকে আঘাত করেছিলেন, সেই থেকেই খাকি পোষাকের ওপরে তার রাগ। বন দপ্তরকে রেল চিঠি দিয়েছিল হনুমানটিকে ধরার আবেদন জানিয়ে। অবশেষে সোমবার বিকেলে ধরা পড়েছে হনুমানটি।

মি. তিওয়ারি জানালেন, “বন দপ্তরের কর্মীরা খাঁচা নিয়ে এসেছিলেন।অনেক কসরত করে সেটাকে ধরা গেছে। খাঁচার মধ্যে কলা ঝুলিয়ে রেখে ফাঁদ পাতা হয়েছিল। ও ধরা পড়ার পর থেকে আমাদের মনে শান্তি ফিরে এসেছে। গত একমাস যা গেল!-বিবিসি