মেইন ম্যেনু

খাবার থালায় মাংস কম, স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা!

খেতে বসে চাহিদা অনুপাতে মাংস না পেয়ে স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে দিলীপ বাউরি নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মুর্শিদাবাদ জেলার ফারাক্কার বাগদেওড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

প্রতিবেশীরা জানান, গতকাল দুপুরে নিজের বাড়িতে খেতে বসেন দিলীপ বাউরি। খাওয়া প্রায় মাঝামাঝি, সে সময় আরো মাংসের তরকারি চান দিলীপ। কিন্তু দিলীপের স্ত্রী সনকা বাউরি মাংস নেই বলে জানান। এ কথা জানাতেই সনকাকে মারতে শুরু করেন দিলীপ।

প্রতিবেশীরা আরো জানান, পাশে রাখা খুন্তি দিয়ে বেধড়ক পেটাতে পেটাতে গালাগালও করতে থাকেন দিলীপ। একপর্যায়ে স্ত্রীর গলা টিপে ধরেন তিনি। এতে ঘটনাস্থলেই শ্বাসরোধ হয়ে মারা যান সনকা।

বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে প্রতিবেশীরা ছুটে গিয়ে দিলীপকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে এবং দিলীপকে গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ জানায়, প্রাথমিক জেরার মুখে সনকাকে খুনের কথা স্বীকার করেছেন দিলীপ।

নিহত গৃহবধূর বাপের বাড়ি ঝাড়খন্ডে। এর আগেও পারিবারিক নানা কারণে সামান্য ঘটনায় স্ত্রী সনকা বাউরিকে মারধর করতেন দিলীপ। প্রতিবেশীরা গিয়ে সনকাকে উদ্ধার করতেন।