মেইন ম্যেনু

খালেদা জিয়াকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য শিষ্টাচারবহির্ভূত

খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য রাজনৈতিক শিষ্টাচারবহির্ভূত উল্লেখ করে এর নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত সমাবেশে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন। আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী মহিলা দল এ কর্মসূচির আয়োজন করে।

সমাবেশে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব অভিযোগ করেন, বর্তমান সরকারের শাসনামলে নারীরা সবচেয়ে বেশি নির্যাতনের শিকার হয়েছেন; গণতন্ত্র না থাকায় হারিয়েছেন কথা বলার অধিকার। বিএনপির চেয়ারপারসন ও ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা করেন মির্জা ফখরুল।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সরকারি দলের নেতা-নেত্রীরা যে ভাষায় কথা বলছেন, সেটা সব ক্ষেত্রে রাজনৈতিক শিষ্টাচারবহির্ভূত বক্তব্য। এবং এ বক্তব্যের সঙ্গে সত্যের কোনো সম্পর্ক নেই। দুর্ভাগ্য আমাদের, আজকে যাঁরা গণতান্ত্রিক আন্দোলন করেন এবং এই দেশের ইতিহাসের দিকে যদি আমরা দেখি, তাহলে দেখা যাবে প্রত্যেক গণতান্ত্রিক নেতার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে এবং তাঁরা আসামি হয়েছেন। আপনি সেই গণতন্ত্রের নেতা, জনগণের নেতা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কটাক্ষ করে অথবা আমাদের তরুণ নেতা তারেক রহমান সাহেবকে কটাক্ষ করে যে কথাগুলো বলা হয়েছে, সেগুলো কখনোই রাজনৈতিক শিষ্টাচারের মধ্যে পড়ে না। এবং গণতন্ত্রের পক্ষে সেটা যায় না।’

একই অনুষ্ঠানে দলের যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, গুম-খুন আর মানুষের ওপর অত্যাচার চালিয়ে প্রধানমন্ত্রী নিজেই জনগণের কাছে আসামি হয়ে আছেন। তিনি বলেন, দেশ থেকে গণতন্ত্র হরণের জন্য জনগণের কাছে প্রধানমন্ত্রী নিজেই দায়ী।

রিজভী বলেন, ‘বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নিজের গায়ের জোরে, রাষ্ট্রশক্তির জোরে নিজের মামলাগুলো খালাস করিয়ে নিয়েছেন। আর আরেকজন নেত্রী সম্পর্কে তিনি বাজে কথা বলেন।’

পরে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে মহিলা দল একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করে। শোভাযাত্রা কাকরাইল মোড় প্রদক্ষিণ করে দলের অফিসের সামনে এসে শেষ হয়।