মেইন ম্যেনু

খেলতে গিয়ে বালক পেল তিন হাজার ৪০০ বছরের কীর্তি

কোনো প্রত্নতাত্ত্বিক এলাকা থেকে বেশ পরিশ্রম করে কোনো নিদর্শন উদ্ধার করা হয়। নৃতাত্ত্বিকদের জন্য বেশ শ্রমসাধ্য কাজ এটি। আর সেখানে খেলতে গিয়ে তিন হাজার ৪০০ বছরের পুরোনো একটি মূর্তি পেয়েছে সাত বছরের এক ইসরায়েলি বালক!

সিএনএন জানিয়েছে, ইসরায়েলের জর্ডান ‌উপত্যকার কাছে প্রাচীন নিদর্শন ‘তেল রেহভ’ ঘুরতে গিয়ে মূর্তিটি খুঁজে পায় ওরি গ্রিনহার্ট নামের ওই বালক।

ইসলায়েলের প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন কর্তৃপক্ষ জানায়, একদিনের ভ্রমণে ঘুরতে গিয়ে পাহাড়ে উঠেছিল ওরি গ্রিনহাট। ওই সময় সে মাটিতে মিশে থাকা প্রচীন মূর্তিটি দেখতে পায়। মূর্তিটি হাতে নিয়ে এর গায়ে লেগে থাকা মাটি পরিষ্কার করে ওরি। দেখা যায়, সেটি একটি নারীমূর্তি।

ওরির মা মরিয়া গ্রিনহাট বলেন, তাঁর ছেলে মূর্তিটি পেয়ে উৎসাহী হয়ে উঠে এবং সেটি বাড়িতে নিয়ে যায়। মূর্তিটি দেখতে পেয়ে তিনি ছেলেকে বোঝান এটি প্রাচীন মূর্তি এবং রাষ্ট্রীয় সম্পত্তি।

পরে ওরি গ্রিনহাটের পরিবার প্রাচীন মূর্তিটি প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন বিষয়ক ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করেন।

তেল রেহভ প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনের পরিচালক অ্যামিহাই মাজের বলেন, নরম মাটি দিয়ে প্রাচীন নারীমূর্তিটি তৈরি করা হয়েছিল। এটি এর মাধ্যমে হয়তো নারীর শরীরকেই বোঝানো হয়েছে। মূর্তিটির মাধ্যমে উর্বরতার দেবী অ্যাস্টারটেও বোঝানো হতে পারে। এটি হয়তো প্রস্তরযুগের ক্যানানাইট সংস্কৃতির অংশ।