মেইন ম্যেনু

খোঁজ মিলেছে ডুবে যাওয়া ভাস্কো-দা-গামার জাহাজের!

ঝকঝকে আকাশ, আরব সাগরের নীল জলরাশি ধাক্কা মারছে খাড়াই পাহাড়ে৷ আরব সাগরের কোল ঘেঁষে দাঁড়িয়ে আছে আল-হালানিইয়াহ দ্বীপ৷ এই দ্বীপের কাছেই সম্প্রতি খোঁজ মিলেছে ডুবে যাওয়া জাহাজের কিছু অংশের৷

এ পর্যন্ত পড়ে হয়ত ভাবছেন সাম্প্রতিক কবে আবার কোন জাহাজডুবি হল? না, এটা কোন সাম্প্রতিক জাহাজডুবির ঘটনা নয়৷ যে জাহাজের অংশ পাওয়া গিয়েছে তার বয়স পাঁচশো বছর৷ সম্প্রতি এসমেরেল্ডা নামে জাহাজটির খোঁজ পেয়েছে ব্রিটেনের বোর্নমাউথ বিশ্ববিদ্যালয় এবং ওমানের সংস্কৃতি মন্ত্রনালয়ের যৌথবাহিনী৷

পুরাতাত্বিকরা জানিয়েছেন, ১৫০৩ সালে ওমানের উপকূলে ডুবে যায় দু’টি জাহাজ৷ তাদের মধ্যে একটি এসমেরেল্ডা৷ পুরাতাত্বিকদের সন্দেহ, জাহাজটি চালাচ্ছিলেন ভাস্কো দা গামার আত্মীয় ভিনসেন্ট সোদ্রে৷ ভয়ঙ্কর সামুদ্রিক ঝড়ের কবলে পড়ে ডুবে যায় জাহাজটি৷ জাহাজের সঙ্গে সলিল সমাধি হয় ক্যাপ্টেন সোদ্রে-সহ সমস্ত জাহাজ কর্মীর৷

এর পর কেটে গিয়েছে প্রায় পাঁচশো বছর৷ খোঁজ মেলেনি জাহাজটির৷ ১৯৯৮ সালে জাহাজটির খোঁজ মিললেও তক্ষুণি শুরু করা যায়নি খননকার্য৷ তার অনুমতি মেলে আরও বছর দশেক পরে৷ অবশেষে শিকে ছিড়ল এত দিনে৷ ডুবে যাওয়া জাহাজ থেকে মিলেছে পঞ্চদশ শতকে তৈরি বিরল রুপোর মুদ্রা, ব্রোঞ্জের ঘণ্টা, সোনালি মুদ্রা, ধাতব চাকতি-সহ তিন হাজারের কাছাকাছি বিভিন্ন জিনিস৷ আবিষ্কারের কথাটি প্রকাশিত হয়েছে আন্তর্জাতিক নটিক্যাল আর্কিওলজিও জার্নালে৷