মেইন ম্যেনু

গণতন্ত্র নামে আছে, বাস্তবে বিপন্ন : এরশাদ

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, ‘স্বাধীনতার অন্যতম স্তম্ভ জাতীয়তাবাদ আজ বহুধাবিভক্ত, গণতন্ত্র নামে থাকলেও বাস্তবে তার অস্তিত্ব বিপন্ন। স্বাধীন দেশে আমরা চেয়েছিলাম সবার জীবনের নিরাপত্তা, দুর্নীতিমুক্ত সমাজ ব্যবস্থা, মানুষের কর্মের সংস্থান। কিন্তু এগুলোর পরিবর্তে এখন হত্যা, খুন, গুম নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। নারী হত্যা, শিশু হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেই যাচ্ছে। সমাজের সর্বস্তরে অবক্ষয় নেমে আসছে।’

শনিবার (২৬ মার্চ) দুপুরে বনানীস্থ নিজ কার্যালয়ে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। জাতীয় পার্টি ঢাকা মহানগর উত্তর এ সভার আয়োজন করে।

স্বাধীনতার সুফল মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে জাতীয়তাবাদী সকল শক্তিকে জাতীয় পার্টির পতাকাতলে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে এরশাদ বলেন, ‘স্বাধীনতা বিরোধীদের সঙ্গে প্রকৃত জাতীয়তাবাদীদের ঐক্য হতে পারে না। জাতীয় পার্টি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং ধর্মীয় মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রকৃত জাতীয়তাবাদের ধারক ও বাহক। তাই সকল জাতীয়তাবাদী শক্তিকে দেশের স্বার্থে জাতীয় পার্টির পতাকাতলেই সমবেত হতে হবে।’

হাতাশা প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘বেকারত্বের জ্বালায় আমাদের নাগরিকরা বিদেশে পাড়ি জমাতে গিয়ে সাগরে ডুবে মরছে, বিদেশের গণকবরে তাদের ঠাঁই হবে। বিদেশে আমাদের শ্রমবাজার কমে যাচ্ছে। দেশেও কোনো বিনিয়োগ নেই। এই অবস্থায় দেশ চলতে পারে না।’

এরশাদ বলেন, ‘ইউপি নির্বাচনে যা ঘটছে তা গণতন্ত্র বিকাশের জন্য সহায়ক নয়। ইউপি নির্বাচনে যেখানে প্রতি ইউনিয়নে গড়ে ৭-৮ জন করে প্রার্থী থাকে, সেখানে এবার অনেক ইউনিয়নে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে। এটা নজিরবিহীন ঘটনা।’

ঢাকা মহানগর উত্তর জাতীয় পার্টির সভাপতি এস.এম. ফয়সল চিশতীর সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়, যুগ্ম মহাসচিব নুরুল ইসলাম নুরু ও সাংগঠনিক সম্পদাক শাহজাহান সরদার প্রমুখ।