মেইন ম্যেনু

গণপিটুনিতে আহত আরও এক শিবিরকর্মীর মৃত্যু

যশোর এম এম কলেজে ছাত্রলীগ ও সাধারণ শিক্ষার্থীদের গণপিটুনিতে আহত শিবিরকর্মী কামরুল হাসান মারা গেছেন।

সোমবার দিনগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে ঢাকায় নেওয়ার পথে দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় তার মৃত্যু হয়।

একই ঘটনায় সোমবার বিকালে হাবিবুল্লাহ নামে এক শিবির কর্মী নিহত হয়েছিলেন। গুরুতর আহত অবস্থায় আছেন মামুন নামে আরও একজন।

নিহত কামরুল হাসান যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার ছোট খুদরা গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে।

গতকাল সোমবার বিকালে ছাত্রলীগের নেতৃত্বে তিন শিবির কর্মীকে পিটিয়ে আহত করে ছাত্রলীগ ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এ ঘটনায় সন্ধ্যায় যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাবিবুল্লাহ এবং ঢাকায় নেওয়ার পথে কামরুল মারা যান।

অপর আহত শিবিরকর্মী আল-মামুনকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি মাগুরার শালিখা উপজেলার আতিয়ার রহমানের ছেলে। হতাহতরা সবাই যশোর সরকারি এমএম কলেজের অর্থনীতি বিভাগের ছাত্র।

যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিকদার আককাস আলী বলেন, নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।