মেইন ম্যেনু

গরমের দিনে আরামদায়ক চুলের সাজ

গরমের দিনে একটু ভারী কাপড় পরে থাকা যেমন কষ্টকর, তেমনি খোলা চুলে থাকা আরও কষ্টকর। এতে গরম বাড়িয়ে দেয় অনেক বেশি। তারওপর আবার প্রকৃতিতে উড়ছে ধুলাবালি। তাই বলে তো ঝামেলামুক্ত থাকতে আর ঘরে বসে থাকা যাবে না। প্রয়োজনে বাইরে বের হতেই হবে। তবে বের হওয়ার আগে নিজের গেটআপটা যদি আরামদায়ক হয় তবে ঝামেলা কমে যায় অনেকটায়। সেজন্য, মেয়েদের চুলের সাজের দিকে খেয়াল রাখা জরুরি। আসুন দেখে নেয়া যাক গরমের দিনে বিভিন্ন পোশাকে আরামদায়ক কিছু চুলের সাজ।

ফ্রেঞ্চ বেণি

মুখের সঙ্গে মানিয়ে সিঁথি করে নিতে হবে। এবার সিঁথির এক পাশ থেকে অল্প চুল নিন। এই চুলগুলো তিন ভাগ করে ফ্রেঞ্চ বেণি শুরু করুন। বেণির বাঁধনের প্রতিটি ধাপে নিচ থেকে একগোছা চুল বেণিতে ঢুকিয়ে দিতে হবে। এক পাশের বেণি শেষ করে কানের কাছে আটকান। একইভাবে সিঁথির অন্য পাশেও বেণি করুন। এবার পেছনের সব চুল নিয়ে খেজুর বেণি করুন। ফ্রেঞ্চ বেণির মতোই খেজুর বেণি করা হয়। শুধু চুল তিন ভাগ না করে দুই ভাগ করুন। এক ভাগ থেকে একগোছা চুল নিয়ে অন্য ভাগে মিলিয়ে দিন। এভাবে পরপর একগোছার চুল আরেক গোছায় দিন। চুলের আগায় এসে একটা সুন্দর ব্যান্ড দিয়ে বেঁধে নিন। হয়ে গেল স্টাইলিশ ফ্রেঞ্চ বেণি। গরমের দিনে চুলও আটকে থাকলো, ধুলোময়লা কম জমলো। উপরন্তু গরম লাগবে কম।

লো পনিটেল

চুল আঁচড়ে এক পাশে সিঁথি করে নিতে হবে। মাথার তালুর অংশের চুল একটু পাফ করে অল্প ফুলিয়ে নিতে পারেন। এবার সামনের অংশে সিঁথির এক পাশের চুল থেকে একগোছা চুল নিয়ে দড়ির মতো পেঁচিয়ে টুইস্ট করুন। এভাবে পাশের আরেক গোছা চুল টুইস্ট করুন। এক পাশের সব চুল টুইস্ট হলে কানের পাশে ক্লিপ দিয়ে আটকে দিন। একইভাবে অন্য পাশের চুলগুলো টুইস্ট করে কানের পাশে আটকান। এবার পেছনের সব চুল একত্র করে মাথার নিচে ঘাড়ের কাছে রাবার ব্যান্ড দিয়ে আটকে ফেলুন। চাইলে এভাবেই রাখতে পারেন। আবার গরমে বেশি আরাম পেতে পনিটেল করা চুলগুলো একটু উঁচু করে একটা পাঞ্চ ক্লিপ আটকে দিতে পারেন।

হাই পনিটেল

ভাপসা গরমে চটজলদি চুলের সাজ চাইলে ট্রাই করুন এই স্টাইলটি। এক পাশে সিঁথি করে মাথার মাঝের চুলগুলো হালকা পাফ করুন। সামনের চুলে লেয়ার কাট থাকলে ছেড়েই রাখুন। চাইলে সিঁথির দুই পাশের চুল কানের দুই পাশে ক্লিপ দিয়ে আটকে দিতে পারেন। এবার পেছনের সব চুল আঁচড়ে উঁচু করে রাবার ব্যান্ড দিয়ে একটা পনিটেল (ঝুঁটি) করুন।

টুইস্ট খোঁপা

দাওয়াতের সাজে এই মৌসুমে শাড়ির সঙ্গে একটা খোঁপা না হলেই নয়। সাজে জমকালো ভাব আনতে সহজ এই খোঁপার জুড়ি নেই। টুইস্ট খোঁপার জন্য চুল ভালো করে আঁচড়ে নিন। সামনে লেয়ার কাট থাকলে এক পাশে সিঁথি করতে পারেন। সিঁথি ছাড়াও খোঁপাটি বেশ ভালো দেখায়। প্রথমে কপালের সামনের চুলগুলো আলাদ করুন। মাথার মাঝের চুলগুলো পাফ করে অল্প করুন। এবার সমনের চুলগুলো কয়েকটি গোছা করে নিন। প্রতিটি গোছাকে একে একে পেঁচিয়ে টুইস্ট করে পাফ করা চুলের ওপর দিয়ে পেছনে এনে ক্লিপ দিয়ে আটকে দিন। সামনের সব চুল টুইস্ট হয়ে গেলে পেছনের চুলগুলো রাবার দিয়ে আটকে নিন। সামনের মতো পেছনের চুলগুলোকে বেশ কয়েকটি গোছা করে নিন। প্রতিটি গোছাকে টুইস্ট করে পেঁচিয়ে খোঁপার শেপ করুন। আকর্ষণীয় লুক পেতে খোঁপার এক পাশে ফুল গুঁজে দিতে পারেন।