মেইন ম্যেনু

গরমে কষ্ট হচ্ছে? আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস শুনলে কষ্ট’ই থাকবে না…

কেরল দিয়ে গত সপ্তাহেই বর্ষা ঢুকে গিয়েছে। এখন সেই বর্ষা অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্নাটকেও চলে এসেছে। দক্ষিণ বঙ্গোপাসাগরের প্রায় অর্ধেকটাও চলে গিয়েছে দক্ষিণ-পূর্ব মৌসুমী বায়ুর দখলে। এখন বর্ষা চলেছে অসম, মেঘালয় ও বাংলাদেশের দিকে। মেঘালয়ে খাসি-জয়ন্তী পাহাড় এবং হিমালয়ে ধাক্কা খেয়ে বর্ষা রাজ্যের মধ্যে প্রথমে ঢুকবে উত্তরবঙ্গে। এর পরে তা গঙ্গা পেরিয়ে কলকাতা ও দক্ষিণবঙ্গে আসবে। হিমালয়ে ধাক্কা খেয়ে উত্তরবঙ্গে হয়ে কলকাতায় বর্ষা পৌঁছতে কম করে হলেও সপ্তাহখানেক সময় আরও লেগে যাওয়ার কথা বলেই মনে করছেন আবহবিদরা।

দিন কয়েক ধরেই কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গে ফের শুরু হয়েছে গরমের দাপট। গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপর একটা হালকা নিম্নচাপ অক্ষরেখা থাকায় বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি হচ্ছে বটে, তবে এতে গরমের চিটচিটে ভাব কমছে না।

আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাসে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭ ডিগ্রি থেকে ৩৮ ডিগ্রির আশপাশেই থাকবে। সর্বনিম্ন তাপমাত্রাও ২৮ ডিগ্রির নিচে নামার সম্ভাবনা কম। আপেক্ষিক আর্দ্রতা ৮৬ শতাংশের আশপাশে থাকছে বলেও পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে।
তবে, বর্ষা না আসা পর্যন্ত এই নিম্নচাপ অক্ষরেখার জন্য মাঝে-মধ্যেই বজ্র-গর্ভ মেঘের সঞ্চার হয়ে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিপাত চলবে বলেও পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে।