মেইন ম্যেনু

গরমে চুলকে রাখুন দূর্গন্ধমুক্ত সহজেই!

গরমে অতিরিক্ত ঘাম আর সেই ঘাম থেকে মাথার চুলে তৈরি হওয়া বোটকা গন্ধ- এ তো এই গ্রীষ্মকালের খুব সাধারন একটা ব্যাপার। গরমে তো শরীর ঘামবেই আর মাথার ঘাম চুলে লেগে সেটা তো দ্রুত ময়লা, আঠালো আর দূর্গন্ধ হবেই, তাই তো? কিন্তু আপনি কি জানেন যে একটু চেষ্টা করলেই খুব সহজে এই বিচ্ছিরি যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে পারেন আপনি? কিভাবে? চলুন দেখে আসি এক নজরে।
গরমকালের দূর্গন্ধময় আঠালো চুলের হাত থেকে মুক্তি পেতে মোট চারটি উপায় বেছে নিতে পারেন আপনি। সেগুলো হচ্ছে-

১. শ্যাম্পু আর কন্ডিশনারের ব্যাপারে হোন সচেতন
অবশ্যই চুল পরিষ্কার করার সবচাইতে ভালো উপায় হিসেবে আপনি বেছে নিতে পারেন শ্যাম্পু করাকে। তবে শ্যাম্পু কেনার সময় এমন শ্যাম্পু নেওয়ার চেষ্টা করবেন যেটা তেলমুক্ত। এছাড়াও কন্ডিশনার ব্যবহারের সময় খেয়াল রাখুন যাতে করে কন্ডিশনার মাথার ত্বক ছুঁতে না পারে। কারণ কন্ডিশনারের ব্যবহার চুলকে আরো তেলতেলে আর দ্রুত দূর্গন্ধময় করে তোলে (পপসুগার)।

২. চুলকে প্রাকৃতিক রাখুন
প্রাকৃতিক বলতে এখানে বোঝানো হচ্ছে যেমনটা সাধারনত থাকে তেমনটা রাখতে। কারণ, খুব স্বাভাবিকভাবেই চুলের স্বাভাবিক একটা সৌন্দর্য আছে। আর সেই সৌন্দর্যের সাথে আছে নিজস্ব একটা ঘ্রাণও। কিন্তু আপনি যদি একের পর এক নতুন নতুন সব পণ্য চুলে ব্যবহার করেন তাহলে আপনার চুল পাবে অনেকগুলো ঘ্রাণের সমন্বয়। যেটা হয়তো আপনার চুল বা চুলের গন্ধের জন্যে খুব একটা সুখকর হবেনা।

৩. ড্রাই শ্যাম্পু বা সুগন্ধী ব্যবহার করুন
বাজারে অনেক রকমের গন্ধযুক্ত ড্রাই শ্যাম্পু কিনতে পাওয়া যায়। যেকোন একটি কিনে নিয়ে পছন্দমতন ব্যবহার করুন। তবে লক্ষ্য রাখুন সেটা যেন তেল শোষণকারী হয়। এছাড়াও চুলের গন্ধ দূর করতে ব্যবহার করতে পারেন নানারকম সুগন্ধী।

৪. চুল ঢেকে রাখুন
গরমে রোদের প্রচন্ড আঁচে আপনার চুল যতটা সহ্যক্ষমতাসম্পন্ন আর সুন্দরই হোকনা কেন সেটা নষ্ট হয়ে যেতে বাধ্য। আর রোদের তপ চুলের ভেতরে ঘামকেও মিশ্রিত করবে খুব সহজেই। তাই চেষ্টা করুন বাইরে বেরোবার সময় চুলটা ঢেকে রাখতে। এজন্য আপনি ব্যবহার করতে পারেন ওড়না, ক্যাপ, হ্যাটসহ অন্য যেকোন জিনিস।

৫. চুলকে হালকাভাবে বাঁধুন
গরমে চেষ্টা করুন চুলকে যাতে খুব বেশি শক্তভাবে বাঁধা না হয় (ইন্ডিয়া টাইমস)। কারণ তাতে করে চুলের ভেতর দিয়ে বাতাস চলাচল করতে পারেনা, সেখানে ঘাম আটকে একটা বিচ্ছিরি অবস্থার তৈরি হয়। আর তাই চুলকে সম্ভব হলে ছোট করে ফেলুন অথবা চেষ্টা করুন এমনভাবে বাঁধতে যাতে করে সেটা খুব বেশি শক্ত না হয়ে যায়।