মেইন ম্যেনু

‘গরীবদের ১০ টাকার চাল লুটপাট করে খাচ্ছে আ’লীগ’

গরীবদের বঞ্চিত করে ১০ টাকার চাল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা লুটপাট করে খাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ।

তিনি বলেন, সরকার দেশে বর্তমান গরীব মানুষের জন্য ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রির যে উদ্যোগ নিয়েছে তা গরীব মানুষের কাজে লাগছে না। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা গরীবের চাল লুটপাট করে খাচ্ছে,তা দেখার কেউ নেই।

রংপুর মহানগরীর কেরানীরহাট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এক জনসভায় এ সব কথা বলেন তিনি।

ওই জনসভা থেকে রংপুরে তার নির্বাচনী প্রচারণার ঘোষণাও দেন এরশাদ।

সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ বলেন, রংপুর জাতীয় পার্টির ঘাঁটি। এই ঘাঁটিতে ফাটল ধরেছে, তা এখন শক্ত হাতে ঠিক করতে হবে। নেতাকর্মীদের মাঝে কোনও সংশয় ও বিভেদ রাখা যাবে না। আমরা আমাদের রংপুর অঞ্চলের ২২টি আসন আবারও উদ্ধার করতে চাই।

সেই লক্ষ্য নিয়ে দলের কাজ করার জন্য তিনি নেতাকর্মীদের আহ্বান জানান।

দেশের মানুষ চায় জাতীয় পার্টি আবার ক্ষমতায় আসুক। মানুষ জাতীয় পার্টির আমলের সুশাসন দেখতে চায়। দেশের মানুষ ভালভাবে বেঁচে থাকতে চায়। নিরাপত্তা চায়। তাই আজকে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের মানুষের সেই প্রত্যাশা পূরণের জন্য কাজ করতে হবে। দলকে আরও শক্তিশালী করতে হবে।

সাবেক রাষ্ট্রপতি বলেন, দেশের গরীব মানুষের উন্নয়ন কতটা হয়েছে তা ঢাকার বস্তির দিকে তাকালে বোঝা যায়।

এরশাদ প্রশ্ন করেন, দেশে গরীব মানুষ নাই, তাই যদি হবে তা হলে কেন গরীবের জন্য ১০ টাকার চাল বিক্রি করা হচ্ছে?

বিগত বিএনপি সরকার আমলের নানা নির্যাতন ও ষড়যন্ত্রের কথা উল্লেখ করে এরশাদ বলেন, আমাকে বেগম খালেদা জিয়া জেলে রেখে হত্যা করতে চেয়েছিল। আর সেই আদেশ পালন করেছে বেঈমান শাহাবুদ্দিন আমাকে জেলে নিয়েছে। কিন্তু আমাকে হত্যা করতে পারে নাই। আমি রংপুরের মানুষের দোয়ায় আজও বেঁচে আছি। আমি মরি নাই। আর এখন আমি এ অপেক্ষায় আছি বেগম খালেদা জিয়া দুর্নীতির দায়ে কবে জেলে যাবে। তা দেখে যেতে চাই…।

জাতীয় পার্টির স্থানীয় নেতা আবদুল হালিমের সভাপতিত্বে জনসভায় বক্তব্য রাখেন জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য মেজর (অব.) খালেদ আখতার, জাপার জেলা কমিটির আহ্বায়ক সাবেক সংসদ সদস্য মোফাজ্জল হোসেন, সদস্য সচিব সাবেক সংসদ সদস্য হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ, মহানগর জাপা আহ্বায়ক সাবেক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, সদস্য সচিব এস এম ইয়াসীর প্রমুখ।