মেইন ম্যেনু

‘গাড়ি কই, দেখছি না যে’

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) এর প্রথম দুই আসরের টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কার পেয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। দু’বারই সাকিবের গ্যারেজে গিয়েছে দুটি নতুন গাড়ি। টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কার হিসেবে সাকিব আল হাসান সেসব পুরস্কার পেয়েছিলেন।

এবারও টুর্নামেন্টের সেরার পুরস্কারের দৌড়ে রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক। তবে আগের দু’বারের মত স্টেডিয়ামে গাড়ির পুরস্কার দেখতে পাননি সাকিব! এজন্য মজা করে বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কার নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে সাকিব আল হাসান বলেন, ‘শেষ দুই বিপিএলে গাড়ি ছিল, এবার গাড়ি তো দেখছি না যে!’

আগের দুই আসরের মত সাকিবের শুরুটা দূর্দান্ত না হলেও বেশ দাপট দেখাচ্ছেন। রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক চার ম্যাচে করেছেন ৬৪ রান। কিন্তু বল হাতে নিয়েছেন দশটি উইকেট। প্রথম পর্বের (ঢাকা) এখনো দুটি ম্যাচ বাকি আছে। সেরার দৌড়ে এখন পর্যন্ত সাকিব আল হাসানকেই ফেভারিট বলা চলে।

গাড়ির পিছনে ছুটছেন না সাকিব আল হাসান। দলকে চ্যাম্পিয়ন করানোর টার্গেট নিয়েও এগুচ্ছেন না। শুধুমাত্র ম্যাচ বাই ম্যাচ দলের হয়ে অবদান রাখতেই পারলেই স্বস্তির নি:শ্বাস ফেলবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

‘সব সময়ই চেষ্টা করি দলের জন্য অবদান রাখতে। যেখানেই খেলি না কেন, সেরাটা দিতে চাই। খারাপ খেলে যখন বাসায় যাই, হোটেলে যাই কিংবা ড্রেসিং রুমে থাকি, তাহলে যে অনুভূতিটা কাজ করে ভেতরে, সেটা কেমন তা তো আমি জানি। ওই অনুভূতি আমি কখনই পেতে চাই না।’

সিলেট সুপারস্টার্সের বিপক্ষে বৃহস্পতিবার শেষ ওভারে জয় পায় রংপুর রাইডার্স। ছয় রানের জয়ে টুর্নামেন্টের তৃতীয় জয় তুলে নেয় সাকিবের দল। রোমাঞ্চকর জয়ের পর উচ্ছ্বসিত সাকিব। নিজের উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে সাকিব বলেন, ‘ম্যাচটি আমাদের জন্যে গুরুত্বপূর্ণ ছিল। চার ম্যাচে এটি আমাদের তৃতীয় জয়। পয়েন্ট টেবিলের দুইয়ে থাকার সুযোগ আরও বেড়ে গেল। প্রতিটি ম্যাচ জিতলে খুব ভালো লাগে। আজকের ম্যাচটি ক্লোজ ছিল বলে বেশি ভালো লেগেছে।’

সিলেটের মুশফিকুর রহিমের আউট নিয়ে আম্পায়ার তানভির হায়দারের সঙ্গে অশোভন আচরণ ও তর্ক করেছেন সাকিব আল হাসান। ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে সাকিবের কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি শুধু বলেন, ‘ওটা নিয়ে কথা বলতে চাচ্ছি না।’