মেইন ম্যেনু

গায়ের গন্ধ থেকেই আদর্শ সঙ্গীর শরীরকে খুঁজে নিতে পারেন মেয়েরা

‘সেন্ট অফ আ উওম্যান’ নয়, এ হল সেন্ট অফ আ ম্যান। ছেলেরা যেমন আকৃষ্ট হন মেয়েদের গায়ের গন্ধে, মেয়েরাও ঠিক তাই। আর সেই থেকেই নাকি একটি মেয়ে চিনে নিতে পারেন প্রাকৃতিকভাবে কোন পুরুষ তাঁদের সেরা সঙ্গী।

ছেলেদের গায়ের ঠিক কেমন গন্ধ পছন্দ মেয়েদের? এ নিয়ে অনেক মতপার্থক্য থাকতে পারে। কেউ সুগন্ধি থেকে আকৃষ্ট হন, কেউ আবার তামাকের বা সিগারেটের গন্ধেও আকর্ষণ বোধ করেন। তবে সুগন্ধের বিষয়টা ছেলে বা মেয়ে উভয়ের ক্ষেত্রেই খাটে। সেই আকর্ষণ থেকে যে সম্পর্ক বহুদূর গড়াবে তার কোনও মানে নেই।

কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন একজন মেয়ে তার বায়োলজিক্যাল ম্যাচ বা প্রাকৃতিকভাবে আদর্শ শরীর-সঙ্গী পুরুষকে চিনে নিতে পারে তার গায়ের গন্ধ থেকেই। কীভাবে? সুইডেনের জুলজিস্ট ক্লাউস ওয়েডেকাইন্ড এর জন্য করেছিলেন একটি বিশেষ ‘সোয়েটি টিশার্ট’ পরীক্ষা। আলাদা আলাদা জিন লিনিয়েজের ৪৯ জন ছেলে ও ৪৪ জন মেয়েকে নির্বাচন করেছিলেন তিনি।

প্রত্যেক ছেলেকে একটি পরিস্কার টি-শার্ট দু’রাতের জন্য পরতে দেওয়া হয়। এর পর ওই টি-শার্টগুলি না কেচে বাক্সবন্দি করা হয়। প্রত্যেক মেয়েকে পাঠানো হয় সাতটি করে বাক্স। তাদের বলা হয় টি-শার্টের গন্ধ থেকে বিচার করতে গন্ধটা কতটা যৌন আবেদনমূলক।

ক্লাউস অত্যন্ত মজার ফলাফল পেয়েছিলেন এই পরীক্ষার। দেখেন, বেশিরভাগ মেয়েই তাদের নিজের জিন গঠনের থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন জিন গঠনের ছেলেদের গায়ের গন্ধে আকৃষ্ট হয়েছেন। বিজ্ঞান বলে, প্রজননের ক্ষেত্রে বাবা-মা দু’জনে একই জিন-গঠনের হলে সন্তানের মধ্যে অনেক শারীরিক সমস্যা ও মারণ রোগ দেখা যায়। অর্থাৎ, ক্লাউসের পরীক্ষায় বেশিরভাগ মেয়েরা সেই পুরুষের গায়ের গন্ধেই আকৃষ্ট হয়েছিলেন, যার থেকে এমন কিছু ঘটার আশঙ্কা নেই।

একে কী বলবেন? প্রজননের কথা মাথায় রেখেই এমন নিঁখুত অংক কষেছে প্রকৃতি? হয়তো তাই।