মেইন ম্যেনু

গুলশানে জঙ্গি হামলায় একজন রিমান্ডে

রাজধানীর গুলশানে হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার ঘটনায় দাউদ পাটোয়ারি (৩১) নামের এক ব্যক্তির দুদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আজ মঙ্গলবার ঢাকার মহানগর হাকিম নুরুন্নাহার ইয়াসমিন এ আদেশ দেন। এর আগে ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের পরিদর্শক হুমায়ুন কবির দাউদকে সাতদিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন। তাঁকে ফৌজদারি কার্যবিধির ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

দাউদ মিরপুর এলাকার আরিফাবাদ হাউজিংয়ের তত্ত্বাবধায়ক। তাঁর বাড়ি নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ থানার নরোত্তমপুর গ্রামে।

সংশ্লিষ্ট আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা এসআই (উপপরিদর্শক) রনপ কুমার ভক্ত বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রিমান্ড আবেদন থেকে জানা যায়, আসামি দাউদ মিরপুরের রূপনগর থানাধীন আরিফাবাদ হাউজিংয়ে একটি বাসার তত্ত্বাবধায়ক।

গত ১ জুলাই গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার পরিপ্রেক্ষিতে তদন্তের অংশ হিসেবে হামলাকারীদের ঢাকার অবস্থান শনাক্ত করা হচ্ছিল।

প্রাথমিক তদন্তে দেখা যায়, হামলাকারীদের কেউ আরিফাবাদ হাউজিংয়ের উল্লিখিত বাসায় থেকে জঙ্গি কার্যক্রম পরিচালনা করেছিলেন। এই আসামি ওই বাসার তত্ত্বাবধায়ক। তিনি ইসমাইল হোসেন নামের এক ব্যক্তিকে বাসা ভাড়া দিয়েছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে, ওই ব্যক্তি জঙ্গিসংশ্লিষ্ট কেউ একজন।

ওই ব্যক্তির কোনো স্থায়ী ঠিকানা এই তত্ত্বাবধায়ক রাখেননি। এ ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটনের জন্য এই আসামিকে রিমান্ডে নিয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা জরুরি।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, ১ জুলাই রাত ৯টার দিকে হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলা চালায় বন্দুকধারীরা। হামলার পর রাতেই তারা ২০ জনকে হত্যা করে। ওই দিন রাতে উদ্ধার অভিযানের সময় বন্দুকধারীদের বোমার আঘাতে নিহত হন পুলিশের দুই কর্মকর্তা। পরের দিন সকালে যৌথবাহিনীর অভিযানে নিহত হয় পাঁচ হামলাকারী।

এ নিয়ে হামলার পর ২৮ জন নিহত হয়। জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) এ হামলার দায় স্বীকার করে। সংগঠনটির মুখপাত্র আমাক হামলাকারীদের ছবি প্রকাশ করে বলে জানায় জঙ্গি তৎপরতা পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা সাইট ইন্টেলিজেন্স।

এ ঘটনায় এক ভারতীয় নাগরিকসহ ছয় ব্যক্তি ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে বিভিন্ন সময়ে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারা মোতাবেক সাক্ষ্য দিয়েছেন।