মেইন ম্যেনু

‘গুলশানে হামলার পর একটি দেশ সৈন্য পাঠানোর প্রস্তাব দিয়েছিল’

গুলশানে হামলার পর একটি শক্তিশালী দেশ সন্ত্রাসী-জঙ্গি দমনের নামে এ দেশে সৈন্য পাঠানোর প্রস্তাব দিয়ে ছিল, কিন্তু বাংলাদেশ সে প্রস্তাব গ্রহণ করেনি। বাংলাদেশ বলেছে, যখন যেটুকু প্রয়োজন তখন সেটুকু সহযোগিতা নেওয়া হবে।’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুল-উল আলম হানিফ আজ বুধবার দুপুরে খুলনা সরকারি মহিলা কলেজ মিলনায়তনে ইমামদের নিয়ে ‘সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে ইসলামের আহ্বান’ শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

ইসলামী ফাউন্ডেশন খুলনা বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত এই কর্মশালা জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন, সাবেক মন্ত্রী বেগম মুন্নুজান সুফিয়ান এমপি, আলহাজ মিজানুর রহমান মিজান, খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মো. আব্দুস সামাদ, খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি এস এম মনিরুজ্জামান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালকের প্রতিনিধি মাওলানা রুহুল আমিন সিরাজী, পরিচালক হারুন অর রশিদ প্রমুখ।

মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেন, ‘কথিত আইএস ইহুদিদের দ্বারা প্রতিষ্ঠিত। গুলশান আর্টিজেন রেস্তোরাঁয় কথিত জঙ্গি হামলা প্রথম খবর প্রচার করে সাইটেক। যার প্রতিষ্ঠাতা ইহুদি রিতা। যার পিতা ইরাকে গুপ্তচর বৃত্তি করতে গিয়ে নিহত হয়েছিলেন। আর সিএনএন তাদের নিয়মিত অনুষ্ঠান সম্প্রচার বন্ধ করে গুলশান ঘটনা প্রচার করে। তারাই আগে প্রচার করে যে বিশজনকে হত্যা করা হয়েছে।’