মেইন ম্যেনু

গুলশান হামলায় নিহতদের প্রতি সর্বস্তরের শ্রদ্ধা

রাজধানীর গুলশানে রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলায় নিহতদের শ্রদ্ধা জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ সোমবার সকাল ১‌০টার দিকে বনানী আর্মি স্টেডিয়ামে রাখা মরদেহগুলোর প্রতি শ্রদ্ধা জানান তিনি।

এ সময় মন্ত্রিপরিষদ সদস্যরা, যুক্তরাষ্ট্র, ইতালি, জাপান, ভারতসহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র, সেনাপ্রধান, পুলিশের মহাপরিদর্শক, র‍্যাব মহাপরিচালক উপস্থিত ছিলেন।

শ্রদ্ধা জানানোর সময় এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। প্রধানমন্ত্রী ঘুরে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, নিহতদের স্বজনদের সঙ্গে কথা বলেন এবং সমবেদনা জানান।

প্রধানমন্ত্রীর পর ভারত, ইতালি, জাপান, যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতরা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এর পর নিহতদের পরিবারের সদস্যরা শ্রদ্ধা জানান। এ সময় অনেককেই কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখা যায়। এর পর মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, আওয়ামী লীগ নেতারা শ্রদ্ধা জানান। স্টেডিয়ামের মাইকে ঘোষণা দেওয়া হয়, শ্রদ্ধা জানানোর মঞ্চ দুপুর ১২টা পর্যন্ত সাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

গত শুক্রবার রাতে গুলশানে হোটেল হলি আর্টিজান বেকারি রেস্তোরাঁয় সন্ত্রাসীদের হামলায় নিহত ২০ জনের মধ্যে নয়জন ইতালিয়ান, সাতজন জাপানি, একজন ভারতীয়, একজন বাংলাদেশি আমেরিকান ও দুজন বাংলাদেশি রয়েছেন।

এ ছাড়া জিম্মিদের উদ্ধার প্রচেষ্টাকালে দুই পুলিশ কর্মকর্তা বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাহউদ্দিন আহমেদ খান ও গোয়েন্দা পুলিশের সহকারী কমিশনার (এসি) রবিউল ইসলাম নিহত হন।

ওসি সালাহউদ্দিনকে বনানী কবরস্থানে এবং এসি রবিউলকে মানিকগঞ্জে গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হয়েছে।