মেইন ম্যেনু

গুলশান হামলা : আরো সাত-আটজন চিহ্নিত

রাজধানীর গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় হামলার ‘মাস্টারমাইন্ড’ হিসেবে তিনজনকে শনাক্তের পর পুলিশ এখন বলছে, এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আরো সাত-আটজনকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সাত-আটজনকে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের বিষয়ে যাচাই-বাছাই চলছে।

পুলিশ ইতোমধ্যে জানিয়েছে, গুলশান হামলার ‘মাস্টারমাইন্ড’ হিসেবে তিনজন কাজ করেছেন। তারা হলেন- আইএসের কথিত বাংলাদেশ সমন্বয়ক তামিম চৌধুরী ও সাবেক সেনা সদস্য সৈয়দ মো. জিয়াউল হক এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগের ছাত্র নুরুল ইসলাম মারজান।

এর আগে গত জুলাই মাসের ১ তারিখ গুলশানের আর্টিসান রেস্টুরেন্টে জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটে। এতে দুই পুলিশ কর্মকর্তাসহ ২২ জন নিহত হয়। সেনাবাহিনীর অপারেশন থান্ডারবোল্টে হামলাকারী ৬ জঙ্গিও নিহত হয়। এই হত্যাকাণ্ডের পর ঘটনাস্থল থেকে জীবিত উদ্ধার হওয়া নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ইঞ্জিনিয়ার হাসনাত করিম ও তাহমিদ হাসিবকে সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেফতার করে পুলিশ।

প্রথম দফায় তাদের ৮ দিনের রিমান্ডে নেয়ার পর হাসনাত করিমকে গুলশানের ঘটনায় গ্রেফতার দেখিয়ে এবং তাহমিদকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে দ্বিতীয় দফায় রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।