মেইন ম্যেনু

গুলশান হামলা নিয়ে নির্মিত হবে চলচ্চিত্র

ঢাকার গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলাকে প্রসঙ্গ করেই এবার ভারতে তৈরি হতে চলছে একটি সিনেমা। এটি পরিচালনা করবেন অগ্নিদেব চট্টোপাধ্যায়। নাম ‘জেহাদ’। সিনেমার শুটিং শুরু হতে যাচ্ছে খুব শিগগিরই। এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন রোহিত রায়, ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজেশ শর্মা এবং ব্যোমকেশ-খ্যাত অভিনেত্রী-মডেল ব়্যাচেল হোয়াইট। আর এমনটাই জানিয়েছে কলকাতার গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন।

তাদের খবরে আরও বলা হয়েছে, শিনা বোরা হত্যাকাণ্ড নিয়ে ‘ডার্ক চকোলেট’ ছবিটি করার পর আবারও সত্যি ঘটনা অবলম্বনে ছবি করতে চলেছেন অগ্নিদেব। মূলত আইএসআইএসদের পয়েন্ট অফ ভিউ উঠে আসবে এই ছবিতে। কারা বানাল আইএসআইএস? কী ভাবে দুনিয়া জোড়া সন্ত্রাস ছড়াল তারা? তাদের দৃষ্টিভঙ্গীই বা কী? এই প্রশ্নগুলোই মুখ্য বিষয় হয়ে ঘোরাফেরা করবে ছবিতে।

এদিকে দুই একদিনের মধ্যেই কলকাতায় ‘জেহাদ’ এর শুটিং শুরু হচ্ছে। এর পরবর্তীতে তুরস্ক, বার্সেলোনা, প্যারিস, এমনকি সিরিয়া সীমান্তেও শুটিংয়ের পরিকল্পনা রয়েছে পরিচালকের।

পরিচালক অগ্নিদেব চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘একটা ফিকশনকে কেন্দ্র করে গল্প ছড়াবে। রোহিত রায় আর ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত থাকবেন ছবিতে স্বামী-স্ত্রীর ভূমিকায়। আর, রোহিতের প্রাক্তন স্ত্রী যে মারা যাবে বাংলাদেশের জঙ্গি হামলায়, সেই চরিত্রটিতে অভিনয় করছেন কনীনিকা।’

কিন্তু কোন অভিনেত্রী তাহলে এই ছবিতে যোগ দিলেন জঙ্গি-দলে? তিনি ব়্যাচেল হোয়াইট! তাকে দেখা যাবে এক সিরিয়ান টেররিস্টের ভূমিকায়। এছাড়া আরও একটি সত্যি ঘটনা জুড়ে থাকবে ছবির চিত্রনাট্যে। বাংলাদেশে গুলশানের তারিশি জৈনের ঘটনা ছবিতে হুবহু না থাকলেও কিছুটা থাকবে।

প্রসঙ্গত, গত পহেলা জুলাই রাতে গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় হামলা চালিয়ে ১৭ বিদেশিসহ ২০ জিম্মিকে হত্যা করে জঙ্গিরা। নিহতদের মধ্যে তারিশি জৈন একজন ভারতীয় তরুণী। একে বাংলাদেশের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় জিম্মি ঘটনা বলে অভিহিতি করা হয়েছে।