মেইন ম্যেনু

গৃহশিক্ষকের হাত ধরে ছাত্রী উধাও

সীতাকুণ্ডের ফৌজদারহাট এলাকা থেকে প্রেমিকা তার গৃহশিক্ষকরে হাত ধরে পালিয়েছে। এব্যাপারে সীতাকুন্ড থানায় উভয়ের পরিবার অভিযোগ করেছে। এদিকে তাদেরকে রবিবার সিলেট থেকে আটক করা হয়েছে মর্মে একটি গুঞ্জন শুনা গেলেও তার সত্যতা এখনও পাওয়া যায়নি।

স্থানীয় সূত্রে জানাযায় ফৌজদারহাট মৌলভী ইয়াকুব এর বাড়ির গিয়াস উদ্দিন এর মেয়ে শান্তা (১৯) তার প্রাইভেট শিক্ষক একই গ্রামের মৃত এখলাছ মিয়া চৌধুরীর ছেলে আজিজুর রহমানের (২৫) সাথে পালিয়ে যায় গত শনিবার সকালে। পারিবারিক ভাবে শান্তার বিয়ের কথাবার্তা চলছেল অন্যছেলের সাথে। দিনতারিখ হওয়ার পূর্ব মুহুতেই সে প্রাইভেট শিক্ষকের হাত ধরে পালিয়ে যায়।

এদিকে সীতাকুণ্ড মডেল থানার সেকেন্ড অফিসার মোঃ আনোয়ার জানান এবিষয়ে মেয়ের পক্ষে সীতাকুন্ড থানায় একটি মামলা হয়েছে। এই প্রেমিক যুগলকে খুজে বের করার চেষ্ঠা চলছে। তবে তাদের কে সিলেটে আটক করার বিষয়টি তিনি জানেন না বলে জানান।

ছেলের বড় ভাই মোঃ আযম জানান মেয়ের পরিবারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন হুমকী ধমকী দিয়ে আসছে। তিনি তার ভাই আজিজুর রহমান নিঁখোজ মর্মে সীতাকুন্ড মডেল থানায় একটি জিডি করেন (জিডিনং ১৩৭)। তিনি আরও জানায় শান্তা নামের মেয়েটি গত ২বছর পূর্বেও তার ফুফাতো ভাইয়ের সাথে পালিয়ে গিয়েছিল।

তিনি মাষ্টার্স পড়োয়া ভাইকে ফিরে পাওয়ার জন্য প্রশাসনের কাছে দাবী জানান। এদিকে মেয়ের আত্মীয় মাহবুব মেম্বার জানায় তাদেরকে সিলেট ডিবিপুলিশ আটক করেছে বলে তিনি জানতে পেরেছে।