মেইন ম্যেনু

গোপালপুরে পুরনো রাস্তা দখলমুক্ত করায় ৪ গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা

টাঙ্গাইলের গোপালপুরে ৫০বছরের একটি পুরাতন রাস্তা দখলমুক্ত করায় ৪ গ্রামবাসির বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করার মাধ্যমে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। মামলার শিকার ও বিশিষ্ট ধান ব্যবসায়ী মির্জাপুর উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত ছবুর আলির ছেলে মো. লাল মিয়া অভিযোগ করেন, গোপালপুর উপজেলার গোপালপুর-ভূঞাপুর সড়কের মির্জাপুর উত্তরপাড়া জুলহাস উদ্দিনের বাড়ি হতে লাঙ্গলজোড়া আবু হানিয়ের বাড়ি পর্যন্ত প্রায় ৮০০ গজ দৈর্ঘ্যরে ৫০বছরের পুরাতন একটি সরকারি সড়কের পাশে মির্জাপুর উত্তরপাড়া গ্রামে আলেয়া বেগম বাড়িঘর নির্মাণ করে পাশ্ববর্তী ৪ গ্রামের প্রায় ৭হাজার মানুষের যাতায়াতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেন। ভূক্তভোগি গ্রামবাসিরা ইউপি চেয়ারম্যান মো. হালিমুজ্জামান তালুকদারের কাছে প্রতিকার দাবি করে। তিনি(ইউপি চেয়ারম্যান) সরজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে রাস্তাটি পুনঃরায় চালু করার নিদের্শ দেন। সে লক্ষ্যে গত ১৫ সেপ্টেম্বর সড়কটি সংস্কার করা হয়। সংস্কার করার সময় স্থানীয় আলেয়া বেগমকে সরকারি সড়কের জায়গা ছেড়ে দেয়ার জন্য বলা হয়। সড়কের জায়গা ছেড়ে না দেয়ায় জবরদখল করা জায়গা উদ্ধার করা হয়। আলেয়া বেগম এতে ক্ষুব্ধ হয়ে মির্জাপুর উত্তরপাড়া, খামারপাড়া, লাঙ্গলজোড়া ও নয়াপাড়া এই গ্রামের ৬০ ব্যক্তির নামে গত ২২ সেপ্টেম্বর টাঙ্গাইলের জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ১৩ লাখ টাকা লোটপাটের অভিযোগ এনে একটি মিথ্যামামলা দায়ের করেন। গোপালপুর থানা পুলিশ তদন্ত শেষে গত ২ অক্টোবর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আবদুল হান্নান আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেছেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মো. আবদুল হান্নান জানান, দীর্ঘ ৪৩ বছর যাবত ব্যবহৃত রাস্তাটি আলেয়া বেগম হঠাৎ করে মানুষের যাতায়াত বন্ধ করে দেয়। পরে ভুক্তভোগি কয়েক শত গ্রামবাসী রাস্তাটি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের সহায়তায় পুনরায় চালু করেন এবং মাটি দিয়ে সংস্কার পূর্বক চলাচলের উপযোগী করে। মামলায় আনা অভিযোগ তদন্তে সম্পূর্ণ মিথ্যা প্রমাণিত হওয়ায় আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেয়া হয়েছে। মিথ্যা মামলার শিকার মির্জাপুর উত্তর পাড়া গ্রামের মো. লালমিয়া বলেন, ৪ গ্রামের ৬০ ব্যক্তির নামে লুটপাটের অভিযোগে আদালতে মামলা করেই ক্ষান্ত হয়নি আলেয়া বেগম। সে সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য সরবরাহ করে গত মঙ্গলবার(৬ অক্টোবর) দৈনিক দিনকাল পত্রিকায় গোপালপুরে গার্মেন্ট শ্রমিকের বসতভিটা ভেঙ্গে জোরপূর্বক রাস্তা নির্মাণ শিরোনামে মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত সংবাদ প্রকাশ করেছে। মির্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. হালিমুজ্জামান তালুকদার জানান, প্রায় ৫০ বছরের পুরাতন একটি সড়কে যাতায়াত বন্ধ করে ঘরবাড়ি নিমার্ণ করে আলেয়া বেগমরা জবরদখল করে নেয়। গ্রামবাসী সড়কটি দখলমুক্ত করে তা মাটি ফেলে সংস্কার করেছে। আর আলেয়া বেগম নিরীহ গ্রামবাসীকে মিথ্যা মামলা দিয়ে ও খবরের কাগজে মিথ্যা খবর প্রকাশ করে হয়রানি করার চেষ্টা করছে। তিনি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান। ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।