মেইন ম্যেনু

গ্রামীণ ব্যাংক নিয়ে হিলারির সঙ্গে তিনবার দেখা করেছেন ইউনূস

গ্রামীণ ব্যাংক নিয়ে সরকারের সঙ্গে টানাপোড়েন চলাকালে ব্যাংকটির পদচ্যুত ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মুহাম্মদ ইউনূস যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক্তন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের সঙ্গে তিনবার দেখা করেছিলেন। এছাড়া তিনি হিলারির কাছে বেশ কয়েকবার টেলিফোনও করেছেন। প্রতিবারই তিনি গ্রামীণ ব্যাংকের ব্যাপারে সরকারের হস্তক্ষেপের বিরুদ্ধে হিলারির সহযোগিতা চেয়েছেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী থাকাকালে ক্লিনটন ফাউন্ডেশনের অনুদান দাতাদের সঙ্গে হিলারির সাক্ষাতের বিষয়ে বুধবার একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস (এপি)। এই প্রতিবেদনে ইউনূসের অনুদান প্রদান ও হিলারির কাছ থেকে তার সহযোগিতার বিষয়টি উঠে এসেছে।

মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্টের তথ্য অনুযায়ী, দায়িত্ব পালনকালে ব্যক্তিগত কারণে হিলারি ক্লিনটনের সঙ্গে দেখা করা বা ফোনে আলাপ করেছেন ১৫৪ জন ব্যক্তি। এদের মধ্যে ৮৫ জনই ক্লিনটন ফাউন্ডেশনে অনুদান দিয়েছেন। তাদের মোট অনুদানের পরিমাণ ১৫৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এদের মধ্যে ৪০ জন কমপক্ষে ১ লাখ ডলার অনুদান দিয়েছেন। আর বিশজন দিয়েছেন ১ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি অর্থ। ক্লিনটন ফাউন্ডেশনে ড. ইউনূসের অনুদানের পরিমাণ ১ লাখ থেকে আড়াই লাখ ডলার। এই ১৫৬ জনের তালিকায় মার্কিন ফেডারেল কর্মকর্তা বা বিদেশি সরকারের কর্মকর্তাদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি।

এপির প্রতিবেদনে বলা হয়, গ্রামীণ ব্যাংকের দায়িত্ব থেকে পদত্যাগে বাংলাদেশ সরকার যখন ড. ইউনূসকে চাপ দিচ্ছিলেন, সেই সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের সঙ্গে তিনবার দেখা করেছেন তিনি এবং টেলিফোনে বেশ কয়েকবার কথা বলেছেন। এ সময় হিলারির সহযোগিতা চেয়েছিলেন মুহাম্মদ ইউনূস। এর প্রতিক্রিয়ায় ড. ইউনূসকে সাহায্য করার কোন পন্থা খুঁজে বের করতে সহকারীদের নির্দেশ দিয়েছিলেন হিলারি ক্লিনটন।

ড. ইউনূস ‘গ্রামীণ আমেরিকা’ নামে যুক্তরাষ্ট্রে একটি অলাভজনক সংস্থার চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন। বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে টানাপোড়েন চলাকালে ওই প্রতিষ্ঠান থেকে ক্লিনটন ফাউন্ডেশনে ১ লাখ থেকে আড়াই লাখ ডলার অনুদান দিয়েছেন তিনি। তবে ব্যাংকের মুখপাত্র বেকি অ্যাশ বলছেন, ওই ফাউন্ডেশনের ক্লিনটন গ্লোবাল ইনিশিয়েটিভ সম্মেলনে অংশগ্রহণের ফি হিসাবে ওই অর্থ দেয়া হয়েছে।

গ্রামীণ রিসার্চ নামের আরেকটি প্রতিষ্ঠানেরও চেয়ারম্যানের দায়িত্বে রয়েছেন ড. ইউনূস। সেই প্রতিষ্ঠান থেকেও ২৫ হাজার থেকে ৫০ হাজার ডলার অনুদান দেয়া হয়েছে ক্লিনটন ফাউন্ডেশনে।