মেইন ম্যেনু

গ্রাম পুলিশের বাড়িতে প্রতিবন্ধি গৃহবধুকে গণধর্ষণ

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে অর্থের লোভ দেখিয়ে গ্রাম পুলিশের বাড়িতে এক প্রতিবন্ধি গৃহবধুকে ধর্ষণের অভিযোগে শনিবার রাতে ভূঞাপুর থানায় মামলা দায়ের করেছে ধর্ষিতা নিজেই। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ফলদা পূর্বপাড়া গ্রামে। এ ঘটনায় পুলিশ ধর্ষক মিজানুর রহমান, আমির আলী ও ধর্ষণের কাজে সহযোগিতা করায় গ্রাম পুলিশ মঙ্গল চন্দ্র দাসকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃত মিজানুর রহমান (২৮) ধনবাড়ি উপজেলার ইস্পিঞ্জাপুর গ্রামের মজিবুর রহমানের ছেলে এবং আমির আলী (২৫) গোপালপুর উপজেলার জোত আতাউল্লা গ্রামের সাহেব আলী বেপারী ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, এক সন্তানের জননী প্রতিবন্ধির সঙ্গে মোবাইলে সম্পর্ক গড়ে তুলেন আমির আলী। পরে অর্থের লোভ দেখিয়ে দরিদ্র এই প্রতিবন্ধিকে গোপালপুর থেকে এনে ভূঞাপুরের ফলদা পূর্বপাড়ার গ্রাম পুলিশ মঙ্গল চন্দ্র দাসের বাড়িতে রাখেন। বাড়ির মালিকের সহযোগিতায় আমির আলী তার বন্ধু মিজানুর রহমান ও অজ্ঞাত আরো কয়েকজন মিলে প্রতিবন্ধি নারীকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের ঘটনা জানাজানি হলে এলাকার লোকজন ধর্ষকদের ধরে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। গ্রেফতার মিজানুর রহমানের নামের এক আত্মীয়কে অপহরণের ঘটনায় মধুপুর থানায় একটি অপহরণ মামলা রয়েছে। সেই মামলায় বর্তমানে সে জামিনে আছে।

ভূঞাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ ফজলুল কবির জানান, ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষিতা নিজেই গ্রেফতারকৃতদের নামে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। আসামীদের টাঙ্গাইল কোর্টের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।