মেইন ম্যেনু

গ্লুটেনের লুকানো উৎস– যা জানলে আপনি অবাক হবেন

আপনার যদি গ্লুটেনের সংবেদনশীলতা বা সিলিয়াক ডিজিজ থাকে তাহলে গ্লুটেনযুক্ত খাবার খাওয়ার প্রতি নিষেধাজ্ঞার পরামর্শ দেয়া হয়। গ্লুটেন হচ্ছে প্রোটিনের মিশ্রণ যা গম, বার্লি ও রাই জাতীয় শস্যে পাওয়া যায়। সিলিয়াক রোগে আক্রান্তদের খুব সতর্ক থাকতে হয় কারণ এই অটোইমিউন ডিজিজের ফলে বদ হজমের সমস্যা হতে পারে যা খুদ্রান্তকে ক্ষতিগ্রস্থ করে। আপনি হয়তো গ্লুটেনমুক্ত ডায়েট অনুসরণ করছেন তবে গ্লুটেনের লূকানো উৎস এর বিষয়ে জানলে আপনি হয়তো অবাক হবেন। গ্লুটেনের লুকানো উৎস এর বিষয়ে জেনে নিই চলুন।

১। মেক আপের পণ্য

লিপস্টিক, লিপগ্লস বা লিপবাম ব্যবহারের পূর্বে একবার ভাবুন। অনেক ধরণের বিউটি প্রোডাক্টে গ্লুটেন ব্যবহার করা হয়। তাই কসমেটিক পণ্য কেনার সময় গ্লুটেন মুক্ত পণ্য কিনুন এবং পণ্যের গায়ের লেবেলটি পড়ে নিন।

২। হিং

ভারতীয় উপমহাদেশের বিভিন্ন রান্নায় ব্যবহার করা হয় হিং। যা একটি জনপ্রিয় মসলা। এই হিং এও সামান্য পরিমাণে গ্লুটেন থাকে। যাদের গ্লুটেন ইন্টলারেন্সের সমস্যা আছে তাদের রান্নায় হিং ব্যবহার করা এড়িয়ে যেতে হবে।

৩। প্রসেসড ওটস

ওটস এর প্রচুর স্বাস্থ্য উপকারিতা থাকলেও আপনাকে যদি গ্লুটেন মুক্ত খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয় তাহলে আপনার প্রসেসড ওটস খাওয়া এড়িয়ে যেতে হবে। প্রক্রিয়াজাত ও সুগন্ধি ওটস এ গ্লুটেন ব্যবহার করা হয়।

৪। আইসক্রিম

দুর্ভাগ্যবশত আপনি আইসক্রিম খেতে পারবেন না যদি আপনার ডায়েটিশিয়ান বা ডাক্তার আপনাকে গ্লুটেন মুক্ত খাবার খেতে বলেন। আইসক্রিমকে ঘন করার জন্য কর্ণস্টার্চ ব্যবহার করা হয়, যাতে গ্লুটেন থাকে এবং উপসর্গের তীব্রতা বাড়ায়।

৫। সালাদ ড্রেসিং

আপনি যখন গ্লুটেন ফ্রি ডায়েট মেনে চলেন তখন আপনাকে সবজি ও ফল খাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। তৈরি করা সালাদ খাওয়ার পূর্বে একবার ভেবে দেখুন। কারণ সালাদ ড্রেসিংকে ঘন করার জন্য ভিনেগার বা ময়দা মেশানো হয় যাতে গ্লুটেন থাকে।

৬। লবণাক্ত ও সুগন্ধিযুক্ত শুষ্ক ফল

লবণাক্ত ও সুগন্ধিযুক্ত শুষ্ক ফল গ্লুটেন মুক্ত নয়। তাই গ্লুটেন মুক্ত থাকার জন্য অলবণাক্ত ও সুগন্ধিহীন ড্রাই ফ্রুট খান।

৭। টমেটো কেচাপ

আপনার খাদ্যে টমেটো কেচাপ ব্যবহারের পূর্বে এর লেবেলটি ভালো করে পড়ে নিন। টমেটো কেচাপে গ্লুটেন থাকার সম্ভাবনা প্রচুর।

৮। চুইংগাম

অনেক জনপ্রিয় চুইংগাম প্রস্তুতকারকই চুইংগাম তৈরির সময় গ্লুটেন ব্যবহার করেন। তাই গ্লুটেনের সমস্যা থাকলে চুইংগাম খাওয়া এড়িয়ে যাওয়াই ভালো।

৯। সয়া সস

আপনার প্রিয় চাইনিজ সসে শুধু সয়াবিন নয় গ্লুটেন ও থাকতে পারে। আপনাকে চাইনিজ ফুড খাওয়া এড়িয়ে যেতে হবে অথবা সয়াসস ছাড়া নিজেই তৈরি করে খেতে হবে।

১০। চকলেট

চকলেট প্রেমিদের জন্য দুঃসংবাদ হচ্ছে চকলেটেও গ্লুটেন থাকে। গ্লুটেন ইন্টলারেন্সের রোগীদের চকলেট খাওয়া এড়িয়ে যাওয়া উচিৎ।