মেইন ম্যেনু

ঘরকে পোকামুক্ত রাখার চাবি আছে আপনার হাতেই

এই ঋতুর অন্যতম প্রধান সমস্যা হল পোকা। সন্ধ্যার আগে থেকে কোথা থেকে যেন পোকা ঢুকতে থাকে ঘরে। মশা বাড়ে, তেলাপোকা, মাছি এসবও বাড়ে। বর্ষার আগে আগে এই পোকার উপদ্রব ভোগ করতে হয় আমাদের সবাইকেই। কিভাবে মুক্তি পাবেন এই নিত্য যন্ত্রণা থেকে? উপায় আছে আপনার আমার হাতেই। আসুন জেনে নিই, জরুরী কিছু কৌশল।

পানি জমিয়ে রাখবেন না
ফুলের টবে, রান্নাঘরের বেসিনে, ওয়াশরুমের অব্যবহৃত পাত্রে পানি জমিয়ে রাখবেন না। এমনকি বাড়ির আশেপাশেও কোথাও পানি জমে থাকে কিনা খোঁজ নিন। এসব পোকার জন্মস্থান ধ্বংস করতে পারলে উপদ্রব কমে যাবে নিশ্চিত। আগে ঘর থেকেই শুরু করুন।

পরিচ্ছন্নতাই প্রধান উপায়
আপনার রান্নাঘরের কেবিনেটের ভেতর, ময়লার ঝুড়িতে, বেসিনের নিচে, পানি যাওয়ার রাস্তায় -এসব জায়গাতেই কিন্তু তেলাপোকাসহ অন্যান্য পোকার জন্ম এবং বিস্তার। নিয়মিত কেবিনেট পরিষ্কার করুন। ময়লার ঝুড়িতে ময়লা জমিয়ে রাখবেন না। আমরা অনেকেই ঝুড়ি ভরে না গেলে ময়লা ফেলি না। অথবা শুকনো ময়লা আছে বলে ২দিন বাদে ফেলব বলে রেখে দিই। পোকারা কিন্তু এমন সুযোগই খোঁজে!

দরজা-জানালায় নেট লাগান
দরজা-জানালায় নেটের একটা আস্তরণ লাগান। বাইরের উড়ে আসা পোকাদের আটকাতে এটা খুবই কার্যকরি। আপনি যদি ভাড়া বাসায় থাকেন, তাহলে হয়ত কাজটি করতে হবে নিজের খরচে। তবে এর চেয়ে শান্তির কৌশল আর হয় না। কারণ ব্যাস্ততার মাঝে জানালা লাগাতে মনে থাকে না অনেক সময়। আবার মনে থাকলেও এই গরমে সব জানালা লাগিয়ে রাখলে ঘর গুমোট হয়ে থাকবে। তাই নেটই বেস্ট সমাধান।

মেরামত করুন প্রয়োজনে
ঘরের জানালার কাঁচ ভাঙা থাকলে, ওয়াশরুমের ছোট জানালাটি কোথাও ফাকা হয়ে থাকলে এগুলো মারামত করে ফেলুন। এই ফাঁক দিয়েই হয়ত রোজ মশা ঢোকে আপনার ঘরে, আপনি জানেনও না। খুঁজে খুঁজে দেখুন ঘরের প্রতিটি এমন জায়গা যেখানে ফাঁকা থাকলে আপনার ঘরে পোকার সংক্রমণ হতে পারে।

পোষা প্রাণীটিকেও পরিষ্কার রাখুন
আপনি হয়ত পাখি পোষেন অথবা বিড়াল। যাই হোক আপনার প্রিয় পোষ্য প্রাণী পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখুন তাকে নিয়মিত। প্রাণীটির থাকার জায়গা, খাবারের পাত্র, পানির পাত্র সবই পরিষ্কার রাখুন নিয়মিত। এতে করে প্রাণীটিও সুস্থ থাকবে, একই সাথে তার মাধ্যমে কোন রোগ ছড়াবে না বা তার আবাসস্থলটি পোকার আখড়া হবে না। আপনি থাকবেন সম্পূর্ণ নিরাপদ।

বারান্দার ছোট বাগানটির যত্ন
শহুরে মানুষ আমরা। বাগান বলতে বারান্দাতেই দু’টি গাছ। কেউ কেউ ছাদেও গাছ লাগানোর সুযোগ পান অবশ্য। আর নিজেদের বাড়ি হলে তো ভিন্ন কথা। তবে আপনার বাগানের পরিধি যাই হোক না কেন, একটু অযত্নই কিন্তু বাড়িয়ে দেবে পোকার আক্রমণ। তাই পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখুন। কোনভাবেই পানি জমে থাকতে দেবেন না। এতে গাছের গোড়া তো নষ্ট হবেই, সাথে পানিতে জন্মাবে মশা।

টিপস-
১। গাছের গোড়ায় লেবু কেটে রেখে দিন। ব্যবহার করা লেবু রেখে দিলেও কাজে দিবে। পোকামাকড় কম আসবে।
২। পুদিনা গাছ লাগান। পুদিনা পাতার গন্ধ মশাকে দূরে রাখে।
৩। লবঙ্গ খুবই কাজের জিনিস পোকা তাড়াতে। রান্নাঘরের যেসব জায়গায় পোকা হয় সেখানে রেখে দিন লবঙ্গ।
৪। চালে পোকা হওয়া রোধ করতে চালের কৌটায় পিঁয়াজ রাখুন। পোকা হবে না।
৫। কাপড়ের ভাঁজে পোকার সংক্রমণ ঠেকাতে রাখতে পারেন ল্যাভেন্ডার, রোজমেরি, লবঙ্গ, দারুচিনি। সুপারশপে পাবেন এগুলো।
৬। চিনি জাতীয় খাবারগুলো সাবধানে রাখবেন। কোথাও একটু পড়েছে তো পোকাকে আপনিই দাওয়াত দিয়েছেন!