মেইন ম্যেনু

ঘরে ঘরে স্টুডিও

একটা সময় ছিল যখন নিজের বাসা থেকে দূরে কোথাও একটা নির্দিষ্ট স্টুডিওতে গানের জন্য এক হতেন সুরকার, গীতিকার, কণ্ঠশিল্পী, সংগীতপরিচালক, যন্ত্রশিল্পীসহ গান সংশ্লিষ্ট মানুষেরা। সময়ের বিবর্তনে পরিবর্তন এসেছে সংগীতাঙ্গনে। এখন বেশীরভাগ সংগীত পরিচালকেরই নিজের বাসায় স্টুডিও। নিজের সুবিধামত যাতে কাজ করতে পারে তাই নিজের বাসার মধ্যেই একটি স্টুডিও সাজিয়ে ফেলছেন। কেউ কেউ সারারাত জেগে কাজ করেন নিজের স্টুডিওতে। বাড়ি ফেরার তাড়া নেই তাই অনেকটা নির্ভার হয়েই কাজ করতে পারেন তারা।

রাজধানীর মগবাজারে বেশিরভাগ সংগীতপরিচালকের গানের কারখানা। এছাড়া বেইলি রোড, শান্তিনগর, মোহাম্মদপুর, ধানমণ্ডি, মিরপুর সহ বেশ কয়েকটি স্থানেই আছে স্টুডিও। রাজধানীর গ্রীণরোডে নিজের স্টুডিও সাজিয়েছেন হাবিব ওয়াহিদ। এর পাশাপাশি গুলশানে নিজের দাদার বাড়িতেও একটি স্টুডিও আছে তার। এখানে বসেই তিনি সৃষ্টি করছেন শ্রোতাপ্রিয় সব গান। রাজধানীর মিরপুরে অবস্থিত হৃদয় খানের স্টুডিও। গত একবছরের বেশি সময় ধরে এখানেই নিজের সব গান সৃষ্টি করছেন এই সংগীতপরিচালক।

মোহাম্মদপুরে নিজের স্টুডিও করেছেন আরফিন রুমি। সারাদিন ঘুম, সন্তানকে সময় দেওয়ার পর রাতেই সাধারণত তিনি কাজ করেন স্টুডিওতে। যাত্রাবাড়ি, মৌচাকের পর এখন বেইলি রোডে নিজের স্টুডিও সাজিয়েছেন ইমরান। এখানে বসেই এখন তিনি এগিয়ে নিচ্ছেন নিজের একক অ্যালবামের কাজ সহ অন্যান্য কাজ।

রাজধানীর মোহাম্মদপুরে অবস্থিত সংগীতপরিচালক সজীব দাসের স্টুডিও। সারাদিনের কর্মব্যস্ততা শেষে রাতে নিজের হোম স্টুডিওতে গান বাঁধতে শুরু করেন তিনি। সজীব দাসের স্টুডিওর পাশেই অবস্থিত আরেক সংগীতপরিচালক সাজিদ সরকারের স্টুডিও। পড়াশোনার পাশাপাশি নিজের এই হোম স্টুডিওতে বসেই একের পর এক প্রসংসিত কাজ উপহার দিচ্ছেন সাজিদ সরকার।

যাত্রাবাড়িতে নিজের স্টুডিও সাজিয়েছেন সংগীতপরিচালক এফ এ সুমন। একটু দূরে স্টুডিওটি অবস্থিত হলেও খুব বেশি সমস্যা হয় না তার। এভাবেই চলছে তার গান সৃষ্টি। মোহাম্মদপুরে নিজের স্টুডিও দিয়েছেন সংগীতপরিচালক জেকে। প্লেবাক, অডিও সহ সকল মাধ্যমের গান তিনি এখানে বসেই সৃষ্টি করছেন।

মিরপুরে আছে আরেক সংগীতপরিচালক জুয়েল মরশেদের স্টুডিও। পান্থপথে আরেকটি স্টুডিওতে কাজ করলেও রাতে নিজের হোম স্টুডিওতে গিয়ে আবারও গান নিয়ে বসে পড়েন তিনি। শান্তিনগরে অবস্থিত সংগীতপরিচালক অয়ন চাকলাদারের স্টুডিও। ক্যারিয়ারের শুরু থেকে এখানেই কাজ করছেন তিনি।

হালের অন্যতম মেধাবী সংগীতপরিচালক নিজের স্টুডিও সাজিয়েছেন লালমাটিয়ায়। এখানে বসেই তার সৃষ্ট গানগুলো প্রশংসা কুড়িয়ে চলেছে নিয়মিত। অন্যদিকে তরুণ সংগীতপরিচালক রেজোয়ান শেখ নিজের স্টুডিও করেছেন রাজধানীর শংকরে। প্রথমে অনেকটা সাদামাটাভাবে থাকলেও সম্প্রতি তিনি স্টুডিওটি খুব সুন্দরভাবে সাজিয়েছেন।

হোম স্টুডিও নিয়ে অনেকেই অনেক কথা বলেন। সিনিয়রদের অনেকের মতেই এখন গান বাজনা অনেক সহজ হয়ে গেছে। ঘরে বসেই এখন গান সৃষ্টি করে ফেলছেন হালের সংগীতপরিচালকেরা যার প্রভাব নাকি তাদের গানেও লক্ষ করা যায়। কিন্তু এরসঙ্গে একমত নন হালের সংগীতপরিচালকেরা। তাদের মতে নিজের বাসার মধ্যেই যদি স্টুডিও থাকে তাহলে কাজ করতে অনেক সুবিধা হয়। আগে একটি নির্দিষ্ট স্টুডিওতে যেমন সুরকার, গীতিকার, শিল্পীর মেলবন্ধন ঘটতো সেখানে এখন হোম স্টুডিওতে বসছে সেই মেলবন্ধন। সৃষ্টি হচ্ছে নতুন গান। শ্রোতারাও সাদরে গ্রহণ করছে গানগুলো। সুতরাং হোম স্টুডিওতে দোষের কিছু নেই।