মেইন ম্যেনু

ঘর দেখে চিনে নিন মানুষকে!

মানুষের চারপাশের সবটাতেই তার নিজস্বতার ছোঁয়া লেগে থাকে। তা সেটা ঘরের একটা ফুলদানী হোক, কিংবা অফিসের ডেস্ক। প্রতিটি জিনিসই একেকভাবে একজন মানুষকে বর্ণনা করার জন্য যথেষ্ট। আর এই তালিকা থেকে বাদ নেই আপনার ঘরটিও। আপনি কি জানেন আপনার বসবাসের ঘরটিই আপনাকে পুরোপুরি বিশ্লেষন করতে পারে? বুঝিয়ে দিতে পারে আপনি মানুষ হিসেবে কেমন? চলুন জেনে নিই এমনই ঘরের মাধ্যমে মানুষের ব্যাক্তিত্বকে বিশ্লেষনের কিছু অদ্ভূত ও মজাদার উপায়।

১. ঘরের দরজার রং- আপনার মনটা ঠিক কেমন?
এতদিন হয়তো খুব একটা ভালো করে তাকানোও হয়নি ঘরের দরজাটার দিকে। রং তো আরো পরের ব্যাপার। কিন্তু এবার একটু ভালো করে দেখে নিন দরজাটাকে। কারণ, বিশেষজ্ঞদের মতে ঘরের দরজার রং ঘরের ভেতরে থাকা মানুষের ব্যাক্তিত্বকে ফুটিয়ে তোলে। দরজার রং লাল হলে বুঝতে হবে বসবাসকারী বেশ সাহসী। এভাবেই, নীল দিয়ে সবকিছুর সাথেই মানিয়ে যাওয়ার ভালো ক্ষমতাসম্পন্ন, কালো দিয়ে একটু সংকীর্ণমনা ও চুপচাপ এবং সবুজ দিয়ে সংস্কৃতিমনস্ক বলে ধরণা করা হয় ঘরের মালিককে।

২. বিছানার নীচ- আপনি কতটা উদ্বিগ্ন?
অনেকের ক্ষেত্রে বাড়ির সবকিছু একদম পরিপাটি, গোছালো আর পরিষ্কার থাকলেও ঠিক বিছানার তলাটা হয়ে থাকে প্রচন্ড নোংরা। হয়তো দিনের পর দিন সেটাতে ঝাঁটও পড়েনা। আর এই বিছানার তোলাটা কেমন সেটার ওপর ভিত্তি করে গবেষকেরা বের করেছেন যে মানুষ কতটা উদ্বিগ্ন। তাদের মতে, কোন মানুষের বাসার সবকিছুর সাথে সাথে খাটের তলাটাও যদি বেশ সাফ-সুতরো দেখায় তাহলে বুঝতে হবে সে যথেষ্ট উদ্বীগ্নতার ভেতরে থাকে। অন্যথায়, খাটের নীচের ধুলোময়লাই মানুষের চিন্তাহীন জীবনের প্রতিচ্ছবি তৈরি করে।

৩. বালিশের খোল- ব্যাক্তি হিসেবে আপনি কেমন?
কি, অবাক হচ্ছেন? ভাবছেন বালিশের খোল পর্যন্ত? হ্যাঁ! ঠিক ধরেছেন। এক্ষেত্রে আপনার বালিশের খোলের কাপড়ে যদি থাকে পশু-পাখির ছবি তাহলে বুঝতে হবে যে আপনি যথেষ্ট সৃষ্টিশীল। অন্যথায় নানারকম জ্যামিতিক আকৃতি দ্বারা গোছালোভাবের অভাব আর বড় ও সোজা স্ট্রাইপ দ্বারা এটা বোঝায় যে আপনি যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী এবং মোটেই অন্যদের ভাবনাকে ভয় পান না।

৪. গোসলের সরঞ্জাম- আপনি কি একাকীত্ববোধ করছেন?
অদ্ভূত হলেও সত্যি যে, স্ম্প্রতি ইয়েল ইউনিভার্সিটির এক দল গবেষক বের করেছেন যে আপনি একাকী বোধ করছেন নাকি না সেটা বুঝিয়ে দিতে পারে আপনার গোসলের সরঞ্জামই। যদি একজন মানুষ খুব বেশিক্ষণ ধরে গোসল করে থাকেন তাহলে বুঝতে হবে যে তিনি নিঃসঙ্গ বোধ করছেন। এছাড়াও অবচেতন মনেই হট শাওয়ার নিয়ে থাকেন অনেকে। বিশেষজ্ঞেরা এটাকে মনে মনে ফাঁকা বোধ করার ফলাফল হিসেবে জানান।

৫. বিছানা- আপনি কি নিজের কর্মজীবনে খুশি?
মনোরোগবিশেষজ্ঞদের মতে, একজন মানুষের বিছানা বলে দিতে পারে যে সেই মানুষটি কর্মজীবনে সুখী নাকি না। এছাড়াও শরীরচর্চার প্রতি মানুষটির আগ্রহ আছে কিনা সেটাও প্রকাশ করতে পারে তার বিছানাটি। এক্ষেত্রে, অগোছালো বিছানার অধিকারীদেরকে কর্মজীবনে অখুশি ও শরীরচর্চা বিমুখী বলে মনে করা হয়। তবে এমনিতেই নয়! এই ধারণার পেছনে রয়েছে প্রায় ৬৮,০০০ মানুষের ওপর করা একটি পরিসংখ্যান।