মেইন ম্যেনু

ফলোআপ

ঘাপটি মারা প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে জিডি দায়ের বেদে সরদারের

অবশেষে বরিশাল বিভাগের বেদে সরদার আব্দুল রহিম সরদার বাদী হয়ে বেদে সম্প্রদায়ের মধ্যে ঘাপটি মারা প্রতারক চক্রের ৪ হোতার বিরুদ্ধে ঝালকাঠি থানায় একটি জিডি (নং-১৫০২/১৫ইং) দায়ের করেছে। সংগবদ্ধ এ প্রতারক চক্রটির প্রতিনিয়ত হুমকি ও ষড়যন্ত্রের হাত থেকে ভবিষ্যতে নিজের ও তার অনুগতদের জীবন-সম্পদ রক্ষার সার্থে ৩১ জুলাই রাতে থানায় এ জিডি দায়ের করেন।

অন্যদিকে বরিশাল বিভাগীয় বেদে সরদার আব্দুল রহিম সরদার পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তা, র‌্যাব ও গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তাদের কাছে বেদে সম্পাদায়ের মধ্যে ঘাপটি মারা প্রতারক চক্রটির বিরুদ্ধে তদন্তসহ আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহনের আবেদন জানিয়েছে।

লিখিত আবেদনে উল্লেখ করা হয়, ঝালকাঠি কৃষ্ণকাঠি ত্রলাকায় জমি কিনে ১৯৮৯ সাল থেকে স্থায়ি ভাবে বসবাস শুরু করি। ১৯৯৫ সালে বরিশালে এক বিভাগীয় সমাবেশে তিনি সরদার নির্বাচিত হয়ে বর্তমান পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করছেন। বর্তমানে শতাধিক বেধে পরিবার নৌকা সহ ঝালকাঠিতে স্থায়ি ভাবে বসবাস করছে ও এখানে তারা তালিকাভূক্ত ৩শ ভোটার রয়েছে।

তিনি আরও জানায়, ইদানিং নিরীহ বেদে সম্পাদায়ের মধ্যে কতিপয় সু-চতুর প্রতারক চক্র সহজ-সরল ও সাধারন মানুষকে ঠকিয়ে অর্থকড়ি হাতিয়ে নিতে শুরু করেছে। এসব অপতৎপরতায় জড়িতদের মধ্যে বাউফলের কালাইয়া ত্রলাকার আলাউদ্দিন পনু, মাদারিপুরের পুর্ব রাস্তি ত্রলাকার বেদে মজিবর, টরকির চর ত্রলাকার বেধে স্বপন, পিন্টু, জলিল, বাদল, আলম মাদারিপুরের খোকন সহ ৭ জন ও তাদের সাথে গৌরনদী এলাকার বেদে সিদ্দিক, পিকু, রাজীব ও নাসিরকে নিয়ে গড়ে ওঠা প্রতারক চক্রটি দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রতারনা করে বেড়াচ্ছে।

সরদার আব্দুল রহিম আরো জানায়, আমরা আইনের প্রতিশ্রদ্ধাশীল বেদে সম্প্রদায় তাদের বিরোধীতা ও প্রশাসনের স্মরনাপন্ন হওয়ায় তারা আমাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে একাধিক মামলা-মিথ্যা অভিযোগ সহ ত্রকের পর ত্রক হয়রানি করেছে। সর্বশেষ ১ আগষ্ট শনিবারও আমাদের একটি বহর মোড়লগজ্ঞ এলাকায় থাকালে তাদের বিরুদ্ধে থানায় মাদক ব্যবসার মিথ্যা অভিযোগ দেয়। সেখানের বহরের ১৭টি নৌকা তল্লাশী করে কোন বেআইনী কিছু না পেয়ে ছেড়ে দেয়।