মেইন ম্যেনু

ঘুম নিয়ে যত ভ্রান্ত ধারণা

ঘুম মানুষের দৈনন্দিন জীবনের একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ কাজ। তবে আরো দশটা কাজের মতন এই দরকারী কাজটির সম্পর্কেও মানুষের মনে জমা রয়েছে অনেক অনেক ভ্রান্ত ধারণা। এই যেমন- দৈনিক ছয় ঘন্টা ঘুমোন উচিত। বাস্তবে কিন্তু ব্যাপারটা মোটেই তা নয়। বিশেষজ্ঞদের মতে আপনার ঠিক ততটাই ঘুমোনো উচিত যতটা ঘুমোলে নিজের শরীর ও মনকে চাঙ্গা করে তুলতে পারবেন আপনি। চলুন জেনে নিই এমনই ঘুম সম্পর্কে আমাদের জানা খুব সাধারন অথচ ভুল কিছু ধারণাকে।

ভ্রান্ত ধারণা ১- রাতে কম ঘুমোলে সমস্যা নেই, দিনের বেলায় বেশি ঘুমিয়ে নিয়ে সেটা পুষিয়ে দেওয়া যায় বাস্তব- হ্যাঁ, এটা হয়তো সত্যি যে রাতের কম ঘুমের পর দিনের খানিকটা ঘুম কাজকর্মে একটু হলেও সাহায্য করবে আপনাকে। তবে এর মাধ্যমে কিন্তু আবার রাতের ঘুমকে প্রভাবিত করছেন আপনি। ফলে রাতের ঘুমটা দিনের বেলায় যতই পুষিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করুননা কেন ক্লান্তি কখনোই কাটবেনা আপনার পুরোপুরি।

ভ্রান্ত ধারণা ২- ছুটির দিনে বেশি ঘুমিয়ে নিয়ে সামনের সপ্তাহের দিনগুলোর ঘুমের ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া যাবে বাস্তব- ঘুম কোন টাকা-পয়সার মতন দ্রব্য নয় আর আপনার শরীরটাও কোন ব্যাঙ্কের লকার নয়। তাই যদি ভাবেন ছুটির দিনে অতিরিক্ত ঘুমোবেন তাহলে সেটা মোটেই আপনার ক্লান্তি দূর করবে না। বরং বাড়িয়ে দেবে। পরবর্তী দিনে আবার ঠিক ঐ সময়গুলোতে ঘুম আসতে চাইবে আপনার। কাজে মন বসতে চাইবে না। তবে এটাও ঠিক যে, গত দিনগুলোর ঘুমের ক্ষতি একটু হলেও হয়তো পুষিয়ে দেবে ছুটির দিনের ঘুম। তবে পরের দিনগুলোর একমই নয়।

ভ্রন্ত থারণা ৩- মাঝরাতে ঘুম ভেঙে গেলে আর ঘুম না আসতে চাইলে বই পড়া বা গান শোনা উচিত, অন্তঃত ঠিক যতক্ষণ আর ঘুম না আসে বাস্তব- গানকে মন শান্ত করিয়ে দিয়ে বা বইকে মন ক্লান্ত করে ফেলে ঘুম আনবার জিনিস বলে অনেকে মনে করলেও আসলে সেটা একদমই ঠিক নয়। উল্টো বইয়ের উজ্জ্বলতা আর গানের শব্দ আপনার মস্তিষ্ককে আরো বেশি জাগিয়ে তুলতে সাহায্য করতে পারে। এরচাইতে অন্ধকারে থাকলে বা খানিকটা যোগব্যায়াম করলেই ব্যাপারটি আপনার জন্যে অনেক বেশি উপযোগী হবে বলে ধারণা বিশেষজ্ঞদের।

ভ্রান্ত ধারণা ৪- বয়স বাড়লে ঘুমের পরিমাণ কমে যায় বাস্তব- আসলে কিন্তু একজন বয়স্ক মানুষের ঠিক ততটাই ঘুমের দরকার হয় যতটা একজন সাবালকের দরকার। তবে বাস্তবে বয়স্কদের ঘুম আসতে একটু সময় লাগে বা ভেঙে যায় (রিডার্স ডাইজেস্ট)। কারণটা বয়স নয়। বরং বয়সের কারণে তৈরি হওয়া নানারকম শারীরিক উপসর্গের দরুনই এমনটা হয়ে থাকে।

ভ্রান্ত ধারণা ৫- একদিন ঘুমের একটু স্বল্পতা হলে একটু ক্লান্তি লাগবে, আর কিছু না বাস্তব- মূলত, ঘুম খুব জরুরী একটা জিনিস আমাদের জন্যে। আর এই জরুরী জিনিসটির হঠাৎ একদিন কমে যাওয়া কেবল ক্লান্ত হবার মতন সামান্য ব্যাপারই নয়, বাড়িয়ে তোলে আমাদের হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনাও ( হাফিংটন পোস্ট )। সেই সাথে হতাশা, স্ট্রোক, টাইপ ২ ডায়াবেটিসসহ আরো নানারকম ঝামেলা তো আছেই।