মেইন ম্যেনু

ঘুরে আসুন সর্ষে ফুলের হলুদ রাজ্যে

শীতকাল। ভীষণ শীতে জড়সড় অবস্থা আমাদের সবার। তবু এই শীত দেয় নানান স্বাদের আনন্দ। শীতে খাই পিঠা পুলি, দেখি অতিথি পাখী। ফোটে বাহারি ফুল। শীতের নানান রঙ এর ফুলের ভীড়ে সবচেয়ে আকর্ষণীয় হয় সর্ষে ফুল। ক্ষেত জুড়ে ফুলের সমারোহ, যেন হলুদের জোয়ার। হলুদের মত একটা কটকটে রঙ ও আমাদের এত প্রিয় হয়ে ওঠে যে চোখ ফেরানো যায় না।

শীতের এই সময়ে সর্ষে ফুলের দারুণ হলদে প্রকৃতি আপনিও দেখে আসতে পারেন চাইলেই। ঢাকার আশেপাশেই আছে মনোরম সর্ষে ক্ষেত। জেনে নিন কোথায় যাবেন-

১। নন্দনকোন
ঢাকার কাছেই আছে নন্দনকোন। মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগরের নন্দনকোন নামেই মুগ্ধতা ছড়ায়। শ্রীনগর খুব বেশি দূরে নয়। বাবুবাজার ও ধলেশ্বরী জোড়া সেতু পার হয়ে নিমতলী আসতে হবে। সেখান থেকে নন্দনকোন আধা ঘণ্টার পথ। এবার নিমতলী থেকে এগিয়ে বাঁ দিকে চৌধুরী সড়কের দক্ষিণমুখী পথে যাবেন। এদিক দিয়ে এগোতে থাকলে সাতগাঁও যাওয়ার আগেই পথে পড়বে চোখ ধাঁধানো সর্ষে ক্ষেত। জায়গাটির নাম নাগের পাড়া।

২। মাওয়া রোড
ঢাকা থেকে মাওয়া রোড ধরে আবদুল্লাহপুর, লৌহজং বা সাইনপুকুর যেদিকেই যান পাবেন দিগন্ত জোড়া সর্ষে ক্ষেত। এখানে পুরো পথ জুড়েই সর্ষে ফুলের মুগ্ধতা।

৩। বেজেরহাটি
মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানের গ্রাম বেজেরহাটি। যেদিকেই দু’চোখ যায় হলুদ আর হলুদ। উপরে নীল আকাশ, নীচে হলুদের মেলা। ঢাকা থেকে খুব দূরেও নয় জায়গাটি।

৪। সিঙ্গাইর
মানিকগঞ্জ জেলার একটি উপজেলা সিঙ্গাইর। গাঁয়ের ছেলেপুলেদের দুরন্তপনা আর কৃষকদের কর্মব্যস্ত সময়, সবই দেখতে পাবেন এখানের সর্ষে ক্ষেতে। ঢাকার গাবতলী পেরিয়ে কিছুটা সামনেই আমিন বাজার। সেখান থেকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক ছেড়ে হাতের বাঁয়ের রাস্তা সোজা চলে গেছে সিঙ্গাইর। তবে হলুদের রাজ্য পেতে সিঙ্গাইর পর্যন্ত যাওয়ার প্রয়োজন নেই। আমিন বাজার থেকে সিঙ্গাইরের দিকে প্রায় ৩ কিলোমিটার চললে নদীর উপরে একটি সেতু পার হতে হয়। ওপারে হাতের বাঁয়ে যে কোনো ছোট সড়ক ধরে একটু ভেতরে ঢুকলেই পেয়ে যাবেন হলদু গালিচায় মোড়ানো ফসলের ক্ষেত।

৫।ঝিটকা
এ জায়গাটিও মানিকগঞ্জে। এখানে গেলেও পেয়ে যাবেন দিগন্তজোড়া সর্ষে ক্ষেত। মাঠ ভরা হলুদ সর্ষে ক্ষেতের ভেতরে বাড়তি দেখা মিলবে আঁকাবাঁকা মেঠোপথের দুই পাশে সারি সারি খেজুর গাছ। এখানকার সর্ষে ক্ষেতগুলোর কোনো কোনো জায়গায় মধুচাষীরা বসেছেন মধু সংগ্রহের জন্য। তাছাড়া সূর্য ওঠার আগে ঝিটকা পৌঁছতে পারলে তাজা খেজুরের রস খেতে পারবেন।

৬। সোনারং
মুন্সিগঞ্জ জেলার টঙ্গীবাড়ি উপজেলার একটি ইউনিয়ন সোনারং। এই শীতে সোনারং-এর রং পাল্টিয়েছে, হয়েছে হলুদ। তাই এখানে গেলেও দেখতে পাবেন মাঠের পর মাঠ সর্ষে ক্ষেত। যেদিকেই তাকাবেন চোখ জুড়িয়ে যাবে। ঢাকার গুলিস্তান থেকে বাসে চড়ে যাওয়া যায় টঙ্গীবাড়ি।

৭। বসিলা

মোহাম্মদপুরের বসিলা ব্রীজ পার হয়ে গেলে পাবেন অসংখ্য ছোট ছোট গ্রাম। ঢাকার মাঝেই এমন গ্রাম ভাবা যায় না। বসিলা ব্রীজে উঠে ইঞ্জিনচালিত ভ্যানে চলে যান এসব গ্রামে। পেয়ে যাবেন কাঙ্ক্ষিত হলুদ রাজ্য।

সর্ষে ফুল দেখার এখনই সময়। দেরি না করে ছুটির দিনে বেরিয়ে পড়ুন বন্ধুরা মিলে। চোখে সর্ষে দেখা বিপদের লক্ষণ হলেও এই সর্ষে দেখে আপনি পাবেন শুদ্ধ, নির্মল আনন্দ।