মেইন ম্যেনু

চট্টগ্রামে বিদেশিদের তালিকা করছে সিএমপি

নগরীতে বিদেশিদের প্রবেশের ক্ষেত্রে আগে থেকে নগর পুলিশের বিশেষ শাখাকে অবহিত করা বাধ্যতামূলক করা পাশা-পাশি চট্টগ্রামে অবস্থানরত বিদেশি নাগরিকদের তালিকা সংগ্রহ শুরু করেছে নগর পুলিশ। আবাসিক হোটেলগুলোকে বিদেশি নাগরিকদের অবস্থানের বিষয়ে নিয়মিত তথ্য দিতে বলেছে সিএমপি।

২৮ সেপ্টেম্বর ঢাকায় ইতালিয় নাগরিক চেজারে তাভেল্লাকে গুলি করে হত্যার পর চট্টগ্রামে বিদেশিদের নিরাপত্তা জোরদারে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয় পুলিশ। এরপর শনিবার (০৩ অক্টোবর) রংপুরে জাপানি নাগরিক ওসি কনিওকে হত্যার পর চট্টগ্রামে অবস্থানরত বিদেশিদের নিরাপত্তা দেয়াকে এখন চ্যালেঞ্জ মনে করছে নগর পুলিশ।

ঢাকার পর চট্টগ্রামে সবচেয়ে বেশি বিদেশি নাগরিক অবস্থান করেন জানিয়ে নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) দেবদাস ভট্টাচার্য বলেন তাদের নিরাপত্তা নিয়ে খুব টেনশনে আছি। সকালে জাপানি নাগরিক হত্যার খবর পেলাম।

এরপর সব থানা-ফাঁড়ি, ডিসি, এসবিকে অ্যালার্ট করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, দু’জন যুদ্ধাপরাধীর ফাঁসির বিষয় আছে। সামনে দুর্গাপূজা। সব মিলিয়ে চট্টগ্রাম নগরীর নিরাপত্তা জোরদার আছে। তবে বিদেশিদের নিরাপত্তার বিষয়ে আমাদের বেশি অ্যালার্ট থাকতে হচ্ছে।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (পশ্চিম) আরেফিন জুয়েল বলেন, আমরা ঘণ্টা দু’য়েক পরপর এক ঘণ্টা করে চেকপোস্টের মাধ্যমে তল্লাশি চালাচ্ছি। প্রত্যেক চেকপোস্টে থানা এবং ফাঁড়ি থেকে দশজন করে ফোর্স অংশ নিচ্ছে। পুলিশ লাইন থেকে চেকপোস্ট পরিচালনার জন্য অতিরিক্ত ফোর্স এসেছে।