মেইন ম্যেনু

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগ-শিবির সংঘর্ষ

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিবির নিয়ন্ত্রনে থাকা সর্বশেষ হল-“শহীদ আব্দুর রব হলে”র ঝুপড়িতে ছাত্রলীগের এক কর্মীকে উস্কানি মূলক মন্তব্য করায় ছাত্রলীগ-শিবির সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষের পর কেউ আহত না হলেও ছাত্রলীগের দাবীর মুখে শহীদ আব্দুর রব হলে “রেড” দিয়েছে পুলিশ।

জানা যায়, দুপুর ২টার দিকে কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মী আব্দুর রব হলের দিকে গেলে শিবির কর্মীরা তাদেরকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছুড়তে থাকে । এই খবর ছড়িয়ে পড়লে ছাত্রলীগের অন্যান্য কর্মীরাও হলের সামনে অবস্থান নেয়।প্রক্টোরিয়াল বডি এবং হলের কর্তৃপক্ষের নির্দেশে হলের মূল ফটক বন্ধ করে রাখায় কেউ হলের ভিতর প্রবেশ করতে পারেনি।এই সময় ছাত্রলীগ কর্মীরা বেশ কয়েকবার হলে ঢুকার চেষ্টা করলেও পুলিশের বাঁধায় তা ব্যর্থ হয়।পরবর্তীতে প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরীর হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হয়।

হলে তল্লাশি চালিয়ে জিহাদী বইসহ একজনকে আটক করে পুলিশ।আটক হওয়া শিবির কর্মী মুস্তফা পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী বলে জানা যায়। এ বিষয়ে জানতে চাইলে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবুল কালাম বলেন,”এখন পরিস্থিতি সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে।জিহাদী বইসহ আটক হওয়া শিবির কর্মীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তার বিরুদ্ধে কোনো মামলা আছে কি না খতিয়ে দেখা হবে এবং পদক্ষেপ নেয়া হবে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে”।

বিভিন্ন গণমাধ্যমে দেয়া বক্তব্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলমগীর টিপু এবং সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বী সুজন এ ব্যাপারে নিজেদের কঠোর অবস্থান স্পষ্ট করেন।চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়কে জঙ্গীবাদ এবং শিবিরমুক্ত করতে চবি ছাত্রলীগ আপোষহীন বলে মন্তব্য করেন দুজনই। পরবর্তীতে ক্যাম্পাসকে শান্তিপূর্ণ রাখার স্বার্থে কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা বলে হুঁশিয়ার করেন তারা।