মেইন ম্যেনু

চট্টগ্রাম-হাটহাজারী চার লেইন মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে গাড়ি পার্কিং

এম এ নুর মালেক, হাটহাজারী (চট্টগ্রাম ) থেকে : চট্টগ্রাম-হাটহাজারী মহাসড়কের চার লেইনের প্রশস্তকরণ প্রকল্পের কাজ চলছে। এই চার লেনের মধ্যে দুই দিকের দুই লেনে এখন গাড়ি পার্ক করা হচ্ছে। তাই এই সড়কে যান চলাচলে ভোগান্তি রয়ে গেছে সেই আগের মতোই। মাঝে মধ্যে দীর্ঘ যানজট শুরু হয় গাড়ি পাকিংয়ের কারনে। প্রতিদিনই শত শত গাড়ি রাস্তা দখল করে অবৈধ ভাবে গাড়ি পাকিং করে সড়কে যানজট সৃষ্টি করছে। কলেজ গেইট ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সামনে পাকিং করে আছে সিএনজি অটো-রিকসা।

চট্টগ্রাম-হাটহাজারী মহাসড়কের সাড়ে ১২ কিলোমিটার পর্যন্ত চার লেন সডক প্রশস্তকরণের কাজ চলছে। মাঝ বরাবর সডক-বিভাজক (রোড ডিভাইডার) আছে। সডকের দুই পাশের দুই লেনে ট্রাক,সিএটো-রিকসা,ভটভটি,টেম্পো,মাইক্রোসহ বিভিন্ন যান বাহন নিজেদের ইচ্ছায় চার লেইন সড়কের দু’পার্শ্বে অলস দাঁড করিয়ে রাখা হয।

হাটহাজারী বাসস্টেশন এলাকার বাসিন্দারচাকরিজীবী মোহাম্মদ হারুন বলেন, সডক প্রশস্তকরণে সাধারণ নাগরিকদের ভোগান্তি দূর হলো না। এতে লাভ হয়েেেছ গাড পার্ক করা লোকজনদের। বাসস্টেশন এলাকার কলেজশিক্ষক রফিক সরকার বলেন, গাড়ি পার্কিংয়ে ফলে রাস্তার পাশ দিয়েও হাঁটাচলা করা যায না।

বড়দিঘীপাড় পুরো এলাকা জুড়ে ট্রাক আর বাস এর পাকিং প্রধান সড়ক দখর করে। চৌধুরীহাট,হাটহাজারী বাসস্টেশন প্রধান সড়ক দখল করে আছে সিএনজি অটো-রিকসা। ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ আইন অনুযাযী সডকের মধ্যে অবৈধ গাড়ি রাখা সম্পুর্ণ অবৈধ কিন্ত ট্রাফিক পুলিশ প্রতিদিন রাস্তার ধারে বসে বিভিন্ন গাড়ি থেকে চাঁদা নিতে ব্যস্ত থাকেন। রাস্তা যানজটের বিষয় গুলো তেমন একটা গুরুত্ব দেয় না।