মেইন ম্যেনু

চরে লঞ্চ আটকে ৫ শতাধিক যাত্রীর ভোগান্তি

বরিশাল-ঢাকা নৌ-রুটের কালাবদর নদীর চরমোনাই সংলগ্ন চরে লঞ্চ আটকে পড়ে পাঁচ শতাধিক যাত্রী ভোগান্তির শিকার হয়েছেন।

রোববার দিবাগত রাত ৩টার দিকে বরিশালগামী পারাবত-১১-এর মাস্টার গোলাম মোস্তফার অসাবধানতায় এ ঘটনা ঘটে। পরে একই কোম্পানির অপর একটি লঞ্চ এসে আটকা পড়া যাত্রীদের নিয়ে সকাল ৬টার দিকে বরিশালের উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

যাত্রীরা জানান, রোববার রাতে ঢাকা ছেড়ে আসা পারাবত-১১ লঞ্চটি ওই স্থানে পৌঁছালে চরে আটকে যায়। রাত ৩টার দিকে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা একই কোম্পানির অপর লঞ্চ পারাবত-৯-এর মাস্টার শামিম আহম্মদকে বিষয়টি মোবাইলে জানানো হয়।

প্রায় ২ ঘণ্টা পর পারাবত-৯ লঞ্চটি ঘটনাস্থলে আসে। দীর্ঘক্ষণ চেষ্টার পর ব্যর্থ হলে পারাবত-১১ লঞ্চের যাত্রীদের নিয়ে সকাল ৬টার দিকে পারাবত-৯ লঞ্চটি বরিশালের উদ্দেশে রওনা হয়।

এ ব্যাপারে পারাবত-৯ এর মাস্টার শামিম আহম্মদ জানান, জোয়ার এলে পারাবত-১১ চর থেকে মুক্ত হতে পারবে।