মেইন ম্যেনু

প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা চার দশকের সর্বোচ্চ

আগামী অর্থবছরে প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা চলতি অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে শূন্য দশমিক ‍দুই শতাংশ বাড়িয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে মোট দেশজ উৎপাদন ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরের তুলনায় ৭.৪ শতাংশ বেশি হবে বলে আশা করছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার আগামী অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন করতে গিয়ে এ কথা বলেন অর্থমন্ত্রী। তিনি জানান, চলতি অর্থবছরে যে লক্ষ্যমাত্রা গ্রহণ করা হয়েছিল তার চেয়ে বেশি অর্জিত হয়েছে। আগামী অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হলে এটা চার দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

মুহিত বলেন, ‘চলতি অর্থবছরে আমরা লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছিলাম ৭.২ শতাংশ। এখন পর্যন্ত যে খবর পাওয়া যাচ্ছে তাতে এটা ৭.২৪ শতাংশ হতে পারে।

আগামী অর্থবছরে মূল্যস্ফীতির হার ধরা হয়েছে ৫.৫ শতাংশ। চলতি বছরের প্রথম নয় মাসে এা ৫.৩৯ শতাংশের মধ্যে রয়েছে বলে জানান মুহিত। যদিও এই লক্ষ্যমাত্রা ছিল ছয় শতাংশের কিছু বেশি।

চলতি বছরের মধ্যে আগামী অর্থবছরেও অর্থনীতি স্থিতিশীল থাকবে বলে আশা করছেন অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেন, বিনিয়োগ বৃদ্ধি থাকার প্রভাবে অভ্যন্তরীণ ভোগ বাড়বে। এতে চলতি হিসাবের ভারসাম্যে কিছুটা ঘাটতি দেখা দিলেও সার্বিক লেনদেনে ভারসাম্য থাকবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রবৃদ্ধিশীল মুদ্রানীতিও অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি। সেই সঙ্গে সুদের হার নিম্নগতি থাকার সুবিধা পাবে জনগণ।






মন্তব্য চালু নেই