মেইন ম্যেনু

চলতি মাসে খালেদার দেশে ফেরা অনিশ্চিত

চলতি অক্টোবর মাসে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার লন্ডন থেকে দেশে ফেরার সম্ভাবনা ক্রমেই কমে আসছে। এক চোখের অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হলেও অন্যটির কবে হবে তা এখনও জানা যায়নি। এরমধ্যে সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

দলের বিভিন্ন সূত্রের খবরে জানা যায়, গত ১৫ সেপ্টেম্বর লন্ডন যাওয়ার পর ২২ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়ার একটি চোখে অস্ত্রোপচার হয়। একটি চোখে অস্ত্রোপচারের সপ্তাহখানেকের মাথায় আরেকটি চোখে অস্ত্রোপচার করার কথা ছিল। কিন্তু এখনও তা হয়নি। এছাড়া অন্য চোখে অস্ত্রোপচার করবেন কিনা তাও নাকি এখনও সিদ্ধান্ত নিতে পারেননি বিএনপি চেয়ারপারসন।

বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে খালেদার দেশে ফেরার কয়েকটি তারিখ জানিয়েছিল গণমাধ্যম। এরমধ্যে ১৬ অক্টোবরের কথা বলা হলেও ইতিমধ্যে তা পার হয়ে গেছে।

তার দেশে ফেরার ব্যাপারে সবশেষ ২১ অক্টোবরের কথা জোরালোভাবে শোনা গেলেও নতুন করে তিনি জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন। এই তারিখেও তার দেশে ফেরা অনিশ্চিত।

আর নতুন করে সমস্যা তৈরি হওয়ায় খালেদা জিয়ার লন্ডন বিএনপি নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাতসহ বেশ কয়েকটি কর্মসূচি বাতিল করা হয়েছে বলেও শোনা গেছে। বিমানের বুকিং বাতিল করা হয়েছে বলেও গুঞ্জন আছে। সেক্ষেত্রে এবারের তারিখ পিছিয়ে গেলে খালেদা জিয়ার দেশে ফেরা নভেম্বরে গড়াতে পারে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় বেশ কয়েকজন নেতার সঙ্গে এ ব্যাপারে কথা হয়েছে। তবে কেউ নির্দিষ্ট করে কিছু বলতে পারেননি। সবারই বক্তব্য, চিকিৎসা শেষ হলেই চেয়ারপারসন দেশে ফিরবেন।

স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান ও মুখপাত্র ড. আসাদুজ্জামান রিপন দুজনই দলের চেয়ারপারসনের দেশে ফেরার নির্দিষ্ট তারিখ জানেন না বলে জানিয়েছেন। ঢাকাটাইমস