মেইন ম্যেনু

চলতি সপ্তাহেই ঢাবি ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি

ছাত্রলীগের ‘সুপার ইউনিট’ হিসেবে পরিচিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কমিটির মেয়াদ ১ বছর। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী, এক বছর পর পর নতুন কমিটি গঠন করতে হয়। কিন্তু ২০১৫ সালের ১১ জুন গুরুত্বপূর্ণ শাখাটির সম্মেলনের পর পঞ্জিকার হিসেবে ইতোমধ্যে পার হয়েছে গোটা ১০টি মাস। কিন্তু এখনো কমিটি চলছে সম্মেলনের আট দিন পর (২০ জুন) ঘোষণা করা সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক দিয়েই।

কমিটির মেয়াদ আর মাত্র ২ মাস থাকলেও এখনো গঠন করা হয়নি পূর্ণাঙ্গ কমিটি। তবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আবিদ আল হাসান ও সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স জানিয়েছেন, চলতি সপ্তাহের মধ্যেই ঘোষণা করা হবে ঢাবি ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি। খবর- জাগো নিউজ।

এদিকে পূর্ণাঙ্গ কমিটি দিতে দেরি হওয়ায় অনেকটা হতাশ হয়ে পড়েছেন পদপ্রত্যাশী নেতাকর্মীরা। কমিটিকে সামনে রেখে রাজনীতির আঁতুড় ঘর হিসেবে পরিচিত মধুর ক্যান্টিনে ভিড় বাড়িয়েছেন পদপ্রত্যাশী নেতারা। এক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মো. সাইফুর রহমান সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক এ এস এম জাকির হোসেনসহ বিশ্ববিদ্যালয় সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের কাছে নিয়মিত ধর্ণা দিচ্ছেন তারা। নিজেকে যোগ্য হিসেবে প্রমাণ করতে জোর লবিং-তদবির করছেন পদপ্রত্যাশীরা।

পদপ্রত্যাশী এক নেতা বলেন, কমিটির মেয়াদ আছে আর মাত্র দুই মাস। কিন্তু এখনো পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা হয়নি। বড় ভাইরা বলেন, শিগগিরই ঘোষণা করবে, সেটি কবে হতে পারে তারা আর আল্লাহ জানেন।

বিভিন্ন সময়ে যাদের বিরুদ্ধে নিষ্ক্রিয় থাকার অভিযোগ ছিল তাদের অনেকেও জোর লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন। শুধু তাই নয়, অতীতে ছাত্রদলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন, এমন অনেকেও ছাত্রলীগের ঢাবি শাখার পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে পদ পেতে মরিয়া। এ তালিকায় শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হল, মাস্টার’দা সূর্যসেন হল, মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, সলিমুল্লাহ মুসলিম হল, ফজলুল হক মুসলিম হল, হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল ও স্যার এ এফ রহমান হলের বেশ কয়েকজন পদধারী নেতাও রয়েছেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স বলেন, সংগঠনে যারা ৫ জানুয়ারির আগে এবং পরে সক্রিয় ছিল তাদের দিয়েই কমিটি গঠন করা হবে। ত্যাগী, যোগ্য এবং নিয়মিত ছাত্ররাই কমিটিতে স্থান পাবে। কোনো অভিযোগে অভিযুক্তরা ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের কমিটিতে স্থান পাবে না। এ মাসের মধ্যেই আমরা পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করবো।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি আবিদ আল হাসান বলেন, আমাদের কমিটি প্রায় চূড়ান্ত। শিগগিরই ঘোষণা করা হবে। চলতি মাসের মধ্যেই পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে।