মেইন ম্যেনু

“চলে গেলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. মোরশেদ চৌধুরী “

বিধান মুখার্জী, গণ বিশ্ববিদ্যালয় : মুক্তিযুদ্ধে রণাঙ্গনের গেরিলা বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. মোরশেদ চৌধুরী আর নেই । সাভারের গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অবস্থায় বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫: ৫০ মিনিটের দিকে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়াৃরাজিউন)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর।

ঢাকা মেডিকেল কলেজের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী থাকা অবস্থায় মুক্তিযুদ্ধ শুরু হলে গেরিলা বাহিনী ক্র্যাক প্লাটুনে যোগ দেন মোরশেদ চৌধুরী। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে এক পর্যায়ে ভারতের ত্রিপুরার বিশ্রামগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য অস্থায়ীভাবে তৈরি “বাংলাদেশ হাসপাতালে” চিকিৎসক হিসাবে যোগ দেন তিনি। ত্রিপুরার ওই হাসপাতালই পরে দেশে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র হিসাবে পরিচিতি পায়। ডা. মোরশেদ গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উপদেষ্টা ছিলেন।

পরবর্তীতে যোগদেন গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজের কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগে । দায়িত্ব পালন করেন বিভাগীয় প্রধান হিসেবে । ডা. মোরশেদ দীর্ঘদিন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন ছিলেন। অবসরে যাওয়ার পরেও অসুস্থ অবস্থায় হুইল চেয়ারে এসে ক্লাস নিতেন ।

সরকার থেকে প্রাপ্য মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা, সুযোগ সুবিধা কিছুই তিনি গ্রহণ না করে অন্য মুক্তিযোদ্ধাদের সব দান করে গিয়েছিলেন তিনি ।
দুপুর গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের হাসপাতালের মাঠে জানাজার পর রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সাভারের নলাম কবরস্থানে দাফন করা হয় ডা. মোরশেদকে। তিনি স্ত্রী ও দুই সন্তান রেখে গেছেন। তার মেয়ে অস্ট্রেলিয়ায় থাকেন।