মেইন ম্যেনু

চাকরির লোভ দেখিয়ে দেহব্যবসা, সরকার দলের নেতা গ্রেপ্তার

চাকরির টোপ দিয়ে ডাকা হতো বেকার তরুণীদের। পরে তাদের আটকিয়ে নামানো হয় দেহব্যবসায়। এমন অভিযোগেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির এক নেতাকে। নীরজ শাক্য নামের ওই নেতা মধ্যপ্রদেশ রাজ্য বিজেপির মুখপাত্র।

অনলাইনের সাহায্যে দেহব্যবসা চালানোর অভিযোগে শুক্রবার তাকে ভোপাল থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরইমধ্যে দল থেকে বহিষ্কার হয়েছেন শাক্য।

পুলিশ জানায়, দীর্ঘদিন ধরেই এই কজা করে আসছিলেন শাক্য এবং তার সঙ্গীরা। তারা মূলত চাকরি পাওয়ার আশায় যেসব ওয়েবসাইটে তরুণ-তরুণীরা নিজেদের তথ্য দিয়ে থাকে, সেগুলোকেই কাজে লাগাতো। তারপর সেখান থেকে বেছে বেছে কিছু তরুণীকে চাকরির টোপ দিয়ে নিয়ে আসা হতো ভোপালে। সেখানেই তাদের দেহব্যবসায় নামতে বাধ্য করা হতো।

শুক্রবার ভোপালের একটি ফ্ল্যাট থেকে হাতেনাতে শাক্যসহ আট জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। চার তরুণীকেও সেখান থেকে উদ্ধার করা হয়। ফ্ল্যাট থেকে জব্দ করা হয়েছে একটি নোটবুক, যাতে বেশ কিছু হেভিওয়েট নেতার নাম পাওয়া গেছে বলে জানায় পুলিশ। পাশাপাশি প্রচুর নারীর নাম ও ফোন নম্বরও রয়েছে নোটবুকে।

এ ঘটনায় শাক্যসহ বাকিদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ। এ চক্রের জাল কতদূর বিস্তৃত তা জানার চেষ্টাও চলছে।






মন্তব্য চালু নেই