মেইন ম্যেনু

চাকরি বদলালে যে ৭ সুফল মেলে

বর্তমান সহকর্মীরা ভালো; নতুন কিছু শেখা হচ্ছে; নতুন চাকরি ঝুঁকিপূর্ণ—মূলত এসব যুক্তি দেখিয়ে অনেকেই চাকরি বদলাতে চান না। কিন্তু চাকরি বদলানোর পক্ষেও অনেক যুক্তি আছে।

বিশেষজ্ঞদের বরাত দিয়ে আজ সেসব যুক্তি তুলে ধরা হলো—

১. দক্ষতা
যাঁরা চাকরি বদলান তাঁরা নিজেদের যোগ্যতা বুঝতে পারেন। নতুন প্রতিষ্ঠানের নতুন নিয়ম ও কর্মপরিবেশ তাঁদের আরো অভিজ্ঞ করে তোলে।

২. কর্মপরিবেশ
যাঁরা চাকরি বদলান তাঁরা সাধারণত অপেক্ষাকৃত ভালো কর্মপরিবেশ পান। নানা ক্ষেত্রে আগের চাকরির চেয়ে ভালোও সুযোগ-সুবিধাও মেলে।

৩. আত্মবিশ্বাস
কয়েক বছর পরপর চাকরি বদলানোর কারণে আরো বেশি আত্মবিশ্বাসী হওয়া যায়। বর্তমান অফিসে সমস্যা তৈরি হলে খুব বেশি দুশ্চিন্তাও হয় না।

৪. পারসোনাল ব্র্যান্ডিং
চাকরি বদলানোর কারণে আপনি পরসোনাল ব্র্যান্ডিংয়ে আরো দক্ষ হয়ে ওঠেন। কারণ চাকরির বাজারে আপনার সক্রিয়তাও প্রমাণিত হয়।

৫. নিজের মূল্যমান
প্রতি তিন বা পাঁচ বছর পরপর চাকরি বদলালে চাকরির বাজারে নিজের মূল্যমান নির্ধারণ করা যায়।

৬. সাক্ষাত্কার
একটি প্রতিষ্ঠানে আটকে গেলে ইন্টারভিউ দেওয়ার দক্ষতা কমে আসবে ধীরে ধীরে। একসময় দেখবেন, অনেক বিপদে পড়ে গেছেন।

৭. যোগ্যতার প্রমাণ
চাকরির পরিবর্তনে আপনি বুঝতে পারবেন কর্মক্ষেত্রে অনেক মানুষই আছেন যাঁরা আপনাকে সমীহের চোখে দেখেন। আপনি যে অনেকের চেয়ে যোগ্য, তাও স্পষ্ট হয়ে উঠবে। এতে নিজের মেধা-মননের চর্চায় আগ্রহ বাড়বে।

-ফোর্বস অবলম্বনে সাকিব সিকান্দার