মেইন ম্যেনু

চাটখিলে মেয়রের নির্দেশ অমান্য করে শতাধিক মানুষের চলাচলের রাস্তা বন্ধ

এম.এ আয়াত উল্যা, স্টাফ রিপোর্টার, নোয়াখালী : নোয়াখালী চাটখিল পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড সুন্দরপুর গ্রামের ছমর উদ্দীন তপদার বাড়ির মাঝখান দিয়ে সীমানা প্রাচীর তৈরী করে শতাধিক মানুষের চলা-চলের রাস্তা বন্ধ করে দেয়, একই বাড়ির হাবিব উল্যাহর পরিবার।

চাটখিল পৌরসভার অভিযোগের মাধ্যমে জানা যায়- হাবিব উল্যাহ জীবিত থাকা অবস্থায় তার ছেলেরা সহ বাড়ির মাঝখান দিয়ে চলা-চল, প্রায় ২৫০ বছর বাড়ির দক্ষিনাংশের শতাধিক মানুষের চলা-চলের রাস্তা বন্ধ করে দেয়।

এ ব্যাপারে ২০১৪ সালে ভূক্তভোগীরা সাবেক পৌর মেয়র মোস্তফা কামালের কাছে অভিযোগ করলে তিনি ১ সপ্তাহের মধ্যে অবৈধ ওয়াল ভেঙ্গে ফেলার নির্দেশ দেন। দুপুরে সরেজমিনে গেলে, ভূক্তভোগী মোঃ আবদুল হাই, আবদুর রেজ্জাক, স্বপন, আমির হোসেন, ইউসুফ, বাবুল, নুর নবী, আমেনা, টুনি, পেয়ারা, লাভলী, সমস্বরে সবাই বলেন, নিজবাড়িতে বিনা দোষে আমরা এখন বন্ধী জীবন যাপন করছি। আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্যে এ এক মহা অভিশাপ। ঐ বাড়ির মৃত আবদুর রশিদের স্ত্রী সিরাজের নেসা (৮০) কান্নারত কন্ঠে বলেন, ৫৭ বছর আগে আমি এই বাড়িতে বউ হয়ে আসি, তখন থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত বাড়ির সবাই এখান দিয়ে চলা-চল করতো। হঠাৎ করে হাবিব উল্যা ও তার ছেলেরা ধরাকে শরা করে আমাদের চলা-চলের রাস্তা বন্ধ করে দেয়।

বর্তমান পৌর মেয়র মোহাম্মদ উল্যাহর কাছে এ- ব্যপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অভিযোগ অনুযায়ী পূর্বের রায় এবং বর্তমান বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত দেওয়া হবে। উভয় পক্ষকে অবশ্যই আইন কানুন মোতাবেক চলতে হবে।