মেইন ম্যেনু

চামড়ার দাম কমাতে লবণ কারসাজি!

লবণ না থাকার অজুহাতে চামড়া কিনছেন না আড়তদাররা। এতে কাঁচা চামড়া নিয়ে বিপাকে পড়েছেন সংগ্রহকারীরা। একদিন পার হয়ে গেলেও সংরক্ষণের ব্যবস্থা না হওয়ায় অনেক চামড়া নষ্ট হতে শুরু করেছে। অভিযোগ উঠেছে, দাম কমিয়ে দিলে আড়তদাররা চামড়া কিনছেন। এতে লোকসানে পড়ে পুঁজি হারাচ্ছেন মৌসুমী সংগ্রহকারীরা।

শুক্রবার কোরবানির পর থেকেই রাজধানীর হাজারীবাগ ও পোস্তায় ভ্যান-রিকশায় চামড়া আসতে শুরু করে। শনিবার সকালে গিয়ে দেখা যায় বিভিন্ন প্রান্ত থেকে চামড়া নিয়ে আসছেন সংগ্রহকারীরা। কিন্তু আড়তে না উঠায় অনেকের চামড়া বাইরে পড়ে থাকতে দেখা যায়।

রহিম নামের এক সংগ্রহকারী জানালেন, ঘোষিত দামে চামড়া নিচ্ছে না আড়তদারেরা। অথচ কম দামে দিলে ঠিকই নিচ্ছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আড়তদারেরা জানালেন, কম দামের জন্য নয়, লবণ না থাকায় চামড়া কেনা হচ্ছে না।

তবে রহিম ভাষ্য, কম দাম দিতে আড়তদারেরা লবণ না থাকার অজুহাত দেখাচ্ছেন। প্রতিবছরই কোরবানিতে আড়তদারেরা এ অজুহাত দেখায়।

তিনি জানান, ঘোষিত দাম অনুযায়ী যে চামড়া ১৫০০ টকায় বিক্রি হওয়ার কথা আড়তদারেরা সে চামড়া ১০০০-১১০০ টাকার বেশি দাম দিচ্ছেন না।

এ অবস্থায় চামড়া বিক্রি করতে না পারায় বিপাকে পড়েছেন সংগ্রহকারীরা। আরও দেখা গেছে, লবণ না দেয়ায় অনেক চামড়া নষ্ট হতে শুরু করেছে।

কবির নামের এক সংগ্রহকারী বলেন, আড়তদারেরা চামড়া না নিলে তার পুঁজির পুরোটাই নষ্ট হবে। কেননা চামড়া সংরক্ষণের ব্যাপারে তার কিছু জানা নেই। তাই লোকসানে হলেও চামড়া বিক্রি করে দিতে হবে।

বেশ আক্ষেপের স্বরে তিনি আরও জানান, আগামী বছর থেকে আর কখনও চামড়া সংগ্রহ করবেন না।