মেইন ম্যেনু

‘চারদিন ধরে মানবেতর অবস্থায় আছি’

‘দেখেন আজ চারদিন ধরে আমরা কত মানবেতর অবস্থায় আছি। এই শীতের মধ্যে কোনোমতে হালকা কিছু খেয়ে এখানে শান্তিপূর্ণভাবে দাবি আদায়ের আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছি। প্লিজ, আমাদের বিষয়টা আপনারা একটু ভাল করে লেখেন। আমরা জানি আপনার লিখতেছেন। আরো ভাল করে লেখেন। যাতে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ হয়। যাতে সরকার আমাদের বিষয়টা বুঝতে পারে।’

শুক্রবার সকালে এভাবেই এই প্রতিবেদকের কাছে কথাগুলো বলছিলেন ২০০৬ সালে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ থেকে পাস করা রীনা আকতার।আজ সকালে চতুর্থদিনের মতো জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ ডিপ্লোমা বেকার নার্সেস অ্যাসোসিয়েশনের ব্যানারে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন বেকার নার্সরা।রীনা আকতার ১০ বছর জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে চাকরির আশায় বসে আছেন।এ ছাড়া এমন কয়েক হাজার বেকার নার্স চাকরির আশায় অবস্থান কর্মসূচিতে উপস্থিত রয়েছেন।

রীনা আকতার আরো বলেন, ‘যারা নার্সিংয়ে পড়ে তাদের পরিবারের আর্থিক অবস্থা ততটা ভাল না। টাকা দিয়ে চাকরি করার মত সামর্থ তাদের নেই। পরীক্ষার মাধ্যমে চাকরি করতে হলে মোটা অংকের টাকা দিতে হবে। আমরা জানি টাকা ছাড়া কোনো চাকরি হয় না।’

তিনি বলেন, ‘সবশেষ ২০০৬ সালে জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে কিছু নিয়োগ দেওয়া হয়। ওই সময়ে পাস করে বের হওয়া প্রায় ছয়শ’ কোটা খালি না থাকায় নিয়োগ পায়নি। আমিও সেই নিয়োগ না পাওয়াদের মধ্যে একজন।’

২০০৭ সালে খুলনা নার্সিং কলেজ থেকে পাস করা ছন্দা গাইন বলেন, ‘পরীক্ষার মাধ্যমে নিয়োগ দেওয়াই যদি হবে, তাহলে এটা আগে থেকেই নির্ধারণ করা উচিত ছিল। তারা জানিয়ে দিতে পারতো যে একটা নির্দিষ্ট সালের পর থেকে পরীক্ষা দিয়ে নিয়োগ পেতে হবে। কিন্তু তা না করে ১০ বছর পর এসে এখন বলছে পরীক্ষার কথা। এটা আমরা কিছুতেই মানতে পারি না।’

সিলেট থকে আসা সুজন মীর বলেন, ‘আমি ২০০৭ সালে পাস করে এখন বেকার বসে আছি। পরিবারের কাছে আমি যেন এখন একটা বড় ধরনের বোঝা।’

২০০৯ সালে পাস করা গাজীপুর থেকে আসা আমেনা আক্তার বলেন, ‘আমরা গত তিনদিন ধরে এখানেই থাকছি এখানেই খাচ্ছি। সেদিন বৃষ্টির মধ্যে বসেও কার্মসূচি পালন করেছি। ঠিক খেতে পারছি না। কতদিন থাকতে হবে তাও বুঝতে পারছি না। প্রাকৃতিক দুর্যোগ হলে মানুষ যেমন শুকনা খাবার খেয়ে বেঁচে থাকে। আমরা তেমনি শুকনা খাবার খেয়ে দিন কাটাচ্ছি।’

তিনি আন্দোলনরতদের দেখিয়ে বলেন, ‘দেখেন কিভাবে সবাই বসে আছে।কত কষ্ট করছে।’

এ সময় দেখা যায়, কেউ কেউ শীতে ঠক ঠক করে কাপছে।বেশির ভাগেরই শীত ঠেকানোর পর্যাপ্ত শীতবস্ত্র নেই।

উল্লেখ্য, সারাদেশ থেকে আসা কয়েকশ’ বেকার নার্স গত ১৯ জানুয়ারি সকাল ১০ টা থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন শুরু করে। পরীক্ষার মাধ্যমে নিয়োগের সিদ্ধান্ত বাতিল করা, চাকরির বয়স ৩৬ করা এবং জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে নিয়োগের দাবিতে বাংলাদেশ ডিপ্লোমা বেকার নার্সেস অ্যাসোসিয়েশ এ কর্মসূচি পালন করছে।