মেইন ম্যেনু

চালু হচ্ছে ই-পাসপোর্ট

পাসপোর্ট সেবাকে আরো বেশি সহজলভ্য এবং প্রযুক্তিবান্ধব করতে শীঘ্রই চালু হচ্ছে ই-পাসপোর্ট। সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ি ইলেকট্রনিক্স পাসপোর্ট (ই-পাসপোর্ট) চালু হলেও থাকবে মেশিন রিডেবল (এমআরপি) পাসপোর্ট। যাদের এমআরপি পাসপোর্টের মেয়াদ আছে তাদের ক্ষেত্রে মেয়াদ শেষ হলেই ই-পাসপোর্ট নিতে হবে।

সোমবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে বয়সভেদে ৫ বছর ও ১০ বছর মেয়াদে এই পাসপোর্ট চালুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানা গেছে, ই-পাসপোর্টে পাতার চিপসে ব্যবহারকারীর সকল তথ্য সংরক্ষিত থাকবে। থাকবে চোখের মণির চিত্র এবং আঙুলের ছাপ। পাসপোর্ট ব্যবহারকারীর এ নিরপত্তা ব্যবস্থার কারণে তথ্য বা পরিচয় গোপন করা বেশ কঠিন হবে।

জানা যায়, ই-পাসপোর্ট ব্যবস্থা বেশ সহজ এবং নিরাপদ। বিদেশগামীদের ভোগান্তি অনেকাংশে কমে যাবে। আমেরিকা, ইংল্যান্ড , কানাডাসহ প্রায় বিশ্বের ১১৮টি দেশে ই-পাসপোর্ট ব্যবস্থা চালু রয়েছে।

বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) পদে মো. মাসুদ রেজওয়ান জানান, নিরাপত্তা এবং সুবিধার কথা চিন্তা করে ই-পাসপোর্ট চালুর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে কমিটি গঠন করা হয়েছে। ৭ থেবে ১০ দিনের মধ্যেই কাজ শুরু করা যাবে। বিদেশগমন নির্ভেজাল করতে বিমানবন্দরে ই-গেট নির্মিত হবে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, অপ্রাপ্ত বয়স্ক বা ১৮ বছরের নিচে এবং ৫৫ বছরের বেশি বয়সীদের পাঁচ বছর মেয়াদি, ১৯ থেকে ৫৫ বছর বয়সীদের ১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট দেওয়া হবে। তবে পাসপোর্ট করার ফি কিছুটা বাড়াবে। ই-পাসপোর্টে ৫ ও ১০ বছর মেয়াদি পাসপোর্ট নিতে ফি লাগবে যথাক্রমে সাড়ে ৫ হাজার ও ১১ হাজার টাকা। এর সঙ্গে ভ্যাট যুক্ত হলে সাধারণ পাসপোর্ট করতে খরচ হবে ৬ হাজার ৩২৫ টাকা এবং জরুরি পাসপোর্টে ১২ হাজার ৬৫০ টাকা।