মেইন ম্যেনু

চিরচেনা ধনেপাতার ৭টি অসাধারণ স্বাস্থ্যগুণ

খাবারের স্বাদ ও গন্ধ বৃদ্ধি করার কাজে ধনেপাতা ব্যবহার করা হয়। এটি খাবারে সুগন্ধযুক্ত করার সাথে সাথে বাড়তি স্বাদযুক্ত করে থাকে। ধনেপাতা শুধু খাবারে স্বাদ বৃদ্ধি করে না, এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, ভিটামিন কে এবং প্রোটিন রয়েছে। শুধু তাই নয় এতে ফসফরাস, পটাশিয়াম, থায়ামিন এবং নিয়াসিন আছে। আসুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক সহজলভ্য ধনেপাতার স্বাস্থ্যগুণ সম্পর্কে।
১। কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে

ধনেপাতায় অলিক এবং লিনোলিক অ্যাসিড রয়েছে। যা রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে। এটি শিরা এবং ধমনীতে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা হ্রাস করে থাকে।
২। ডায়রিয়া প্রতিরোধ করে থাকে

হজমের সমস্যার কারণে ডায়ারিয়া হয়ে থাকে। ধনেপাতা হজম প্রক্রিয়াকে ত্বরান্বিত করে ডায়ারিয়া প্রতিরোধ করে থাকে। বাটারমিল্কের সাথে ধনেপাতা মিশিয়ে পান করুন। এটি ডায়ারিয়া প্রতিরোধ করে থাকবে।
৩। বমিবমি ভাব দূর করা

ধনেপাতা বমিবমি ভাবো দূর করে থাকে। এর বায়ো অ্যাকটিভ উপাদান পাকস্থলী প্রশমিত করে বমিবমি ভাব দূর করে থাকে। সাথে পেটে ব্যথা সারিয়ে তুলে।
৪। ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করতে

ধনেপাতাকে অ্যান্টি-ডায়াবেটিক হার্ব বলা হয়ে থাকে। এটি রক্তে চিনির পরিমাণ এবং কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রন করে থাকে। এর উচ্চ পটাসিয়াম এবং নিম্ন সোডিয়াম রক্তে সুগারের পরিমাণ স্থিতিশীল রাখতে সাহায্য করে।
৫। মুখের ঘা প্রতিরোধে

মুখের ঘা খুবই যন্ত্রণাদায়ক এবং অস্বস্তিকর একটি সমস্যা। ধনেপাতা এই সমস্যা কিছুটা হলেও প্রশমিত করে থাকে। ধনেপাতার অ্যান্টিসেপটিক উপাদান মুখের ঘা দূর করতে সাহায্য করে।
৬। হাড় মজবুত করতে

ধনেপাতা হাড় মজবুত করতে সাহায্য করে থাকে। এর ক্যালসিয়াম, মিনারেল এবং অন্যান্য পদার্থ হাড়ের স্থায়িত্ব বৃদ্ধি করে হাড় পূর্ণ গঠন করতে সাহায্য করে।
৭। দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধি করতে

ধনেপাতা চোখের জন্য ভাল। এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান চোখের ব্যাধি ভাল করে থাকে। নেত্র সংক্রান্ত ব্যাধি দূর করতে এটি বেশ কার্যকর।

সহজলভ্য এই মশলাটির স্বাস্থ্যগুণ অপরিসীম। প্রতিদিন খাবারের সাথে যুক্ত করে নিন ধনেপাতা। খাবারের স্বাদ বৃদ্ধির সাথে সাথে আপনাকে দূরে রাখবে অনেকগুলো রোগ থেকে।